ইতালিতে করোনায় আক্রান্ত ২ লাখেরও বেশি

মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ছাড়িয়েছে ইতালিতে। দেশটির জননিরপাত্তা কর্তৃপক্ষের দেওয়া তথ্যমতে মঙ্গলবার একদিনে ২ হাজার ৯১ জন আক্রান্ত হয়েছে। তাতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২ লাখ ১ হাজার ৫০৫ জন। যা বিশ্বের মধ্যে তৃতীয় সর্বোচ্চ।

ইতালির চেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে স্পেন ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। স্পেনে আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৩২ হাজার ১২৮ জন। আর যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত হয়েছে সর্বোচ্চ ১০ লাখ ৩০ হাজার ৩১৫ জন।

গেল ২৪ ঘণ্টায় ইউরোপে করোনাভাইরাসের উপকেন্দ্র ইতালিতে মারা গেছে ৩৮২ জন। সোমবার মারা গিয়েছিল ৩৩৩ জন। দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৭ হাজার ৩৫৯ জন। একদিনে সেখানে সেরে উঠেছে ২ হাজার ৩১৭ জন। তাতে মোট সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৮ হাজার ৯৪১ জন।

এদিকে ধীরে ধীরে লকডাউন তোলার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় ইতালির প্রধানমন্ত্রী গুইসেপে কন্তে তীব্র সমালোচনার সম্মুখীন হয়েছেন। সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাতেও রেনজি থেকে শুরু করে ড্রেমোক্রেটিক পার্টি ও অন্যান্য দলের সমালোচনার মুখোমুখি হচ্ছেন।

রেনজির মতে ইতালির জিডিপি (সামষ্টিক অভ্যন্তরীণ উৎপাদন) ৮ শতাংশের নিচে নেমে যাবে। আর ব্লুমবার্গ অর্থনৈতিক পূর্বাভাসে বলা হয়েছে দেশটির অর্থনৈতিক প্রবৃত্তির হার ১৩ শতাংশের নিচে নেমে যেতে পারে।

অবশ্য কন্তে মনে করছেন এখনই যদি লকডাউন তুলে ফেলেন তাহলে আবারো আক্রান্তের হার বেড়ে যেতে পারে।

এ বিষয়ে তিনি বলেছিলেন, ‘আমরা যদি এখনই লকডাউন তুলে ফেলি তাহলে অল্প সময়ের মধ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ছাড়িয়ে যাবে। এরপর হয়তো ৪ লাখ, ৮ লাখ, ১৬ লাখ এভাবে বাড়বে। এখন যে মৃত্যু হার রয়েছে, এটা অনেক বেড়ে যাবে। তখন কিন্তু নিজেকেই নিজে ক্ষমা করতে পারবো না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.