কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিনা চিকিৎসায় নাঙ্গলকোটের প্রবাসীর মৃত্যু

কুমিল্লা প্রতিনিধি: কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডাক্তারদের অবহেলায় বিনা চিকিৎসায় এক রেমিট্যান্স যোদ্ধার মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। আজ শনিবার সকাল ৯টার দিকে হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। নিহত রেমিট্যান্স যোদ্ধা নুুর আহম্মদ (৫০) নাঙ্গলকোটের বাঙ্গড্ডা ইউনিয়নের কাদবা গ্রামের হায়াতুন নবীর ছেলে। নুর আহম্মদ দীর্ঘ দিন থেকে কুয়েত প্রবাসী ছিলেন। তাঁর স্ত্রী ও চার মেয়ে রয়েছে। তিনি গত চারমাস থেকে ছুটিতে বাড়িতে অবস্থান করেন। তার মৃত্যুতে পরিবারে শোকের মাতম বইছে। নিহত নুর আহম্মদের বড় ভাই ফয়েজ আহমেদ বলেন, আমার ছোট ভাই নুর আহম্মদকে ডায়াবেটিস ও পায়ের তালুতে বিষফোঁড়ার অসুস্থতা নিয়ে শুক্রবার বিকেলে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাই। হাসপাতালে নিয়ে অনেক হয়রানির পর বিকেল ৫টায় তাকে হাসপাতালের ৫ম তলায় ১৫ নম্বর বেড এ ভর্তি করি। ভর্তির পর অনেক চেষ্টা করেও ডাক্তার, নার্সদের দেখা মেলেনি। পরে রাতে এক ইন্টার্নি ডাক্তার ও নার্স আসলেও তারা তাকে ভালোভাবে দেখেনি। ডাক্তাররা তার ডায়াবেটিসসহ অন্যান্য পরীক্ষার কথাও বলেনি। এক পর্যায়ে ডাক্তারদের চরম অবহেলায় আজ শনিবার সকাল ৯টায় ডায়াবেটিস (সুগার) শূন্যের কোঠায় এসে সে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। তিনি অভিযোগ করে আরো বলেন, আমার ভাই হাসপাতালে ভর্তির ১৬ ঘন্টায়ও ডাক্তার, নার্সদের কোন সেবা না পেয়ে অবহেলা মৃত্যু বরণ করেন। সে ভালো ছিল। সারারাত এবং সকালেও সে কথা বলেছে। কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ মোঃ মুজিবুর রহমান বলেন, নুর আহম্মদের ডায়াবেটিস ও হার্টের সমস্যা ছিল। তিনি হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন। ডাক্তাররা তাকে চিকিৎসা দিয়েছে। তিনি বিনা চিকিৎসায় মারা যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.