1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahmed : Sohel Ahmed
শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:০৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রাজধানীর বাজারগুলোয় কিছুটা কমেছে চালের দাম, বেড়েছে মুরগির দাম মুম্বাইয়ে ফের জঙ্গি হামলার হুমকি, সতর্কতা জারি বিএনপির আন্দোলনে জনগণ সাড়া দেয় না : আমু দেশের ৩২ জেলায় নিপাহ ভাইরাসের সংক্রমণ চন্দনাইশ হাশিমপুরে মিলাদ মাহফিলে শায়েখ মাও. হাসান আল- আজহারী ভৈরবে ছাত্রী অপহরণ মামলার আসামী গ্রেফতার সত্যিই আমরা স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে যাত্রা শুরু করেছি – শিক্ষামন্ত্রী পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর অবজ্ঞা আর রক্ত চক্ষু উপেক্ষা করে শক্ত অবস্থান নিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু : ড.কলিমউল্লাহ বাগেরহাটের রামপালে ০৯ (নয়) কেজির অধিক তামারসহ চোর চক্রের ০৩ জন সদস্য আটক জাপানি মেয়েসহ আত্মগোপনে থাকা বাবাকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব

করোনা আক্রান্ত ওমর আলীর পরিবারের পাশে পায়েল ফাউন্ডেশন

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৬ মে, ২০২০
  • ১২০ বার

সংবাদদাতা:

চট্টগ্রামের উত্তর কাট্টলীতে অবস্থিত গারটেক্স গার্মেন্টের কমার্শিয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট অফিসার ওমর আলী (৫০) গত ৮ এপ্রিল করোনাভাইরাস আক্রান্ত হন। এর এক সপ্তাহ পর তাঁর ৬ সদস্যের পরিবারের আরও ৪জন করোনা আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হন চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের একই ওয়ার্ডে। শুধু পরিবারের সর্ব কনিষ্ঠ সদস্য সাড়ে ৩ বছরের মেয়েটি বেঁচে যান করোনার করোনার ভয়াল থাবা থেকে। তবে এই পরিবারের করোনা আক্রান্ত ৫ সদস্যই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। সর্বশেষ গতকাল সোমবার পর পর দুটি নমুনা পরীক্ষায় করোনা উপসর্গ না থাকায় মেয়ে সামান্থা আকতার হাসপাতালের ছাড়পত্র পেয়েছেন।
করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরা পরিবারের অপর সদস্যরা হলেন- ওমর আলীর স্ত্রী শামীমা আকতার (৪২), বড় ছেলে তোফায়েল আহমদ (২৪), মেঝো ছেলে হুমায়ুন আহমেদ (২২) ও মেয়ে সামান্থা আকতার ((১৮)।
বিশ্বব্যাপী করোনার ভয়াবহতার মধ্যেও পুরো পরিবার সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরায় স্বস্থি প্রকাশ করলেও চিকিৎসকের নিদের্শনা মেনে তাদের ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিন পালন করতে হচ্ছে। এদিকে করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর গত এক মাসে স্থানীয় সেভাবে কেউ খবর নেননি পরিবারটির। হাসপাতাল থেকে বাসায় ফেরার পর পাড়া প্রতিবেশীরাও জানতে চাননি তারা কেমন আছেন? সবার মনেই ভয়। যেন অপরাধ করেছে পরিবারটি। পাহাড়তলী থানা থেকে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ((ওসি) এসে দুই দফায় চাল, ডাল, তেলসহ কিছু খাদ্যসামগ্রী দিয়ে গেছেন। ১২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কিংবা জনপ্রতিনিধিদের কেউ একটু খবর পর্যন্ত নেওয়ার প্রয়োজনবোধ করেনি বলে জানান ওমর আলী।
তবে এই পরিবারটির জন্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে পায়েল ফাউন্ডেশন। সম্প্রতি ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে চেয়ারম্যান ফাহাদ চৌধুরী দিপু পরিবারটির দুই সপ্তাহ চলার মতো খাদ্য ও ইফতার সামগ্রী ওমর আলীর হাতে তুলে দিয়েছেন। পরবর্তিতেও এই সহায়তা অব্যাহত রাখা হবে বলে তিনি জানান।
ওমর আলী পায়েল ফাউন্ডেশনের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, ‘আমার অফিস থেকে প্রতিনিয়তই খোঁজ নেওয়া হয়েছে। আর খোঁজ নিয়েছেন কয়েকজন সংবাদকর্মী। তাঁদের কাছ থেকে আমি যে সহযোগিতা পেয়েছি তা কোনদিন ভুলবো না। আর পায়েল ফাউন্ডেশন এমন এক সময় এগিয়ে এসেছেন যখন আমার পরিবার অনেকটা স্বেচ্চা গৃহবন্ধি। তাঁরা মানবতার সেবায় যেভাবে এগিয়ে এসেছেন সেজন্য তাঁদের প্রতি আমি ও আমার পরিবার কৃতজ্ঞ।’
পায়েল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ফাহাদ চৌধুরী দিপু বলেন, ‘এমন দূর্যোগের সময় বিপন্ন মানুষের প্রতি সামর্থ্যবানদের এগিয়ে আসা মানবিক দায়িত্ব। সেই মানবিকতার ডাকেই আমরা সাড়া দিয়েছি। শুনে অভাক হয়েছি যে পরিবারটির এমন বিপদের দিনে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কোন সহযোগিতা পাননি। অথচ সরকার প্রতিটি ওয়ার্ডে ত্রাণ সহায়তা পাঠিয়েছে।’ পায়েল ফাউন্ডেশন ভবিষ্যতেও পরিবারটির পাশে থাকবেন বলে আশ্বস্ত করেন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..