কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে যাতায়াতের কাচা রাস্তা নির্মানকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে এক যুবক নিহত

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) থেকে সজল আশিকঃ কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুরে যাতায়াতের রাস্তাকে কেন্দ্র করে দু পক্ষের সংঘর্ষে শামীম নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ সময় আরো ৫ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে আশংকাজনক অবস্থায় তিন জনকে কুষ্টিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার বিকেলে দিকে উপজেলার রিফাইতপুর ইউনিয়নের হরিনগাছি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
শামীম একই গ্রামের মেহের মালিথা এর ছেলে। খবর পেয়ে পুলিশের ভেড়ামারা সার্কেলের এডিশনার এসপি আল বেরুনী দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসএম আরিফুর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছেন। এ ঘটনায় এলাকায় আতংক বিরাজ করছে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, হরিনগাছি মালিথাপাড়া গ্রামে একটি কাঁচা রাস্তা নির্মান নিয়ে মেহের মালিথা গ্রুপ ও কাউসার-রাজ্জাক মোল্লা গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। সংঘর্ষে উভয় গ্রুপের লোকজন হাসুয়া, রামদা, লাঠিসোঠা ও দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে একে অপরের উপর হামলা চালায়। প্রায় ঘন্টা ব্যাপী চলা সংঘর্ষে মোল্লা গ্রুপের লোকজন শামীমের মাথায় হাসুয়া ও শরীরে বিভিন্ন অংশ লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি আঘাত করলে সে গুরুতর আহত হয়। আহত অবস্থায় প্রথমে দৌলতপুর হাসপাতালে নিলে অবস্থার অবনতি হওয়ায় পরে কুষ্টিয়া সদর হাসাপাতালে নেয়ার পথে সন্ধ্যার দিকে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় সাহাজুল, ছোটন, দিলু মেম্বর, শুকঁচাদ ও মুকাদ্দেস আহত হয়। আহতদের মধ্যে মালিথা সাহাজুল (৩৫), শুকাঁচদ (৪৫) ও মুকাদ্দেসকে (৫০) আশংকাজনক অবস্থায় কুষ্টিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
রিফাইতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু বলেন, একটি ছোট কাচা রাস্তা নির্মানকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। ঘটনার পর এলকার শান্তি বজায় রাখার জন্য পুলিশ সদস্যরা কাজ করছেন।
দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস এম আরিফুর রহমান জানান, ‘কাচা রাস্তা নির্মানকে কেন্দ্র করে এ সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। ঘটনাস্থলে গিয়ে এ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছি। এ ঘটনায় দায়ীদের গ্রেফতারে অভিযান চালানো হচ্ছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে’।

Leave a Reply

Your email address will not be published.