1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahmed : Sohel Ahmed
বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
এইচএসসির ফল প্রকাশ আগামীকাল, যেভাবে জানা যাবে ফল রাজধানীর বাজারগুলোয় কিছুটা কমেছে চালের দাম, বেড়েছে মুরগির দাম মুম্বাইয়ে ফের জঙ্গি হামলার হুমকি, সতর্কতা জারি বিএনপির আন্দোলনে জনগণ সাড়া দেয় না : আমু দেশের ৩২ জেলায় নিপাহ ভাইরাসের সংক্রমণ চন্দনাইশ হাশিমপুরে মিলাদ মাহফিলে শায়েখ মাও. হাসান আল- আজহারী ভৈরবে ছাত্রী অপহরণ মামলার আসামী গ্রেফতার সত্যিই আমরা স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে যাত্রা শুরু করেছি – শিক্ষামন্ত্রী পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর অবজ্ঞা আর রক্ত চক্ষু উপেক্ষা করে শক্ত অবস্থান নিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু : ড.কলিমউল্লাহ বাগেরহাটের রামপালে ০৯ (নয়) কেজির অধিক তামারসহ চোর চক্রের ০৩ জন সদস্য আটক

রমজানের সব আনন্দ কেড়ে নিয়েছে করোনা,

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১২ মে, ২০২০
  • ১৫২ বার

আলহাজ্ব সোহেল‌ আহমেদ

করোনার সংক্রমণ এড়াতে ইফতারে এমন গণজমায়েতে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে
পবিত্র রমজান মাস মুসলমানদের জন্য একটি আনন্দের মাস। রমজান মাসে রোজা রেখে ইফতার করা ও ইফতার করানোও আনন্দের কাজ। বন্ধু, আত্মীয়-স্বজন, অফিস-সহকর্মী, পাড়া-প্রতিবেশীর সঙ্গে ইফতার করা এবং রাজনৈতিক দলের ইফতার পার্টি আমাদের সংস্কৃতির একটি অংশ। এছাড়া পুরান ঢাকাসহ সারাদেশেই রকমারি ইফতারির পসরা সাজিয়ে ইফতার বিক্রি করে এবং ক্রয় করার মধ্যে রয়েছে আনন্দ।

বিশেষ করে আয়োজন ও জমায়েত করে ইফতার করলে যেমন আনন্দ পাওয়া যায় তেমনি একে অপরের মধ্যে সম্পর্কও আরও মজবুত হয়। কিন্তু এসবের কিছুই এবারের রমজানে নেই। করোনা রমজানের সব আনন্দই কেড়ে নিয়েছে।

সারাদিন রোজা থাকার পর বিকেলে ইফতার তৈরি করে প্রতিবেশীর ঘরে পাঠানো, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব বা সহকর্মীর বাসায় ইফতার পাঠানো এবং প্রতিবেশীর ইফতার নিজের ঘরে আসার সংস্কৃতি যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। এর মধ্যদিয়ে আমরা যেমন আনন্দ উপভোগ করি তেমনি আত্মীয়তার বন্ধনটাও দৃঢ় হয়।
কিন্তু করোনা এবার সব পথ বন্ধ করে দিয়েছে। প্রতিবেশী বা যে কারো বাসায় ইফতার পাঠানো দূরের কথা; এবার কোনো আত্মীয় কারো বাসায় গেলেও দরজা খোলে না। খুললেও দূরে দাঁড়িয়ে কথা বলেই বিদায় করে দিচ্ছে। বিষয়টি আমাদের সংস্কৃতির সঙ্গে অত্যন্ত বেমানান হলেও বাস্তবতার কারণেই সবাই এ পরিস্থিতি মেনে নিয়েছে। এ পরিস্থিতিতে আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়াও বন্ধ করে দিয়েছেন অনেকে।

পবিত্র রমজান মাসে একদিকে যেমন রোজার আনন্দ অন্যদিকে রোজার শুরু থেকে চাঁদরাত পর্যন্ত নিজের এবং আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধবের জন্য কেনাকাটারও একটা আনন্দ আছে। পাঞ্জাবি-পায়জামা, জুতা, স্যান্ডেল, শাড়ি, সালোয়ার কামিজ থেকে শুরু করে প্রসাধনী কেনাকাটায় পুরো মাসটা ব্যস্ততার মধ্যদিয়ে কেটে যায়। তবে এর মধ্যে আনন্দও আছে। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে এবার মার্কেট, সুপারমল, দোকানপাট সব বন্ধ। করোনার কারণে বড় বড় সুপারমলগুলো খুলবে না আগেই জানিয়ে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। রোজার মাঝামাঝি এসে দু-একটি দোকানপাট বা ছোটখাট মার্কেট খুললেও সেখানে কোনো ক্রেতা নেই। করোনা আতঙ্কের কারণে অনেকে ঘর থেকেই বের হচ্ছেন না। ফলে কেনাকাটার আনন্দ থেকেও দেশবাসীকে বঞ্চিত করছে করোনা।

রমজান মাস এলেই দেশের রাজনৈতিক দলগুলো বড় বড় ইফতার মাহফিলের আয়োজন করে থাকে। সারা মাস এসব ইফতার মাহফিলে লাখ লাখ লোকের সমাগম ঘটে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ দেশের সব রাজনৈতিক দল ও এর অঙ্গ-সহযোগী এবং ভ্রাতৃপ্রতীম সংগঠনগুলো ইফতার পার্টির আয়োজন করে। এর মধ্যদিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যেও সম্পর্ক আরও মজবুত হয়। বিশেষ করে আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়সহ সহযোগী সংগঠনগুলোর অফিসেও প্রতিদিন শতশত মানুষের ইফতারের আয়োজন থাকত। আর গণভবনে নির্মাণ করা হতো বিশাল প্যান্ডেল। প্রতিদিন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের জন্য ইফতারির আয়োজন করা হতো। মানুষের পদচারণায় যেসব জায়গাগুলো মুখরিত ছিল সেই স্থানগুলো এবারের রমজানে জনশূন্য খাঁ খাঁ করছে।

প্রতি রমজান মাসে আওয়ামী লীগ যে ইফতারকেন্দ্রিক রাজনৈতিক কর্মসূচি নিয়ে ব্যস্ত থাকত, এবার তা নেই। করোনা পরিস্থিতিতে সব পাল্টে গেছে। করোনার কারণে না খেয়ে থাকা মানুষজনের কাছে ত্রাণ আর ইফতারসামগ্রী নিয়ে হাজির হচ্ছেন দলটির নেতাকর্মীরা। আওয়ামী লীগের নেতারা বলছেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণে রমজান মাসে ইফতারকেন্দ্রিক রাজনৈতিক কর্মসূচিতে ছন্দপতন ঘটলেও মানুষের জন্য কাজ করার সুযোগ বাড়িয়েছে এই ভাইরাস। তারা বলছেন, সারাদেশেই রমজান মাসে মানুষের মধ্যে আনন্দ এবং উৎসবমুখর ভাব থাকলেও এবার অন্যরকম এক আতঙ্ক বিরাজ করছে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মানুষকে সচেতন করে পাশে দাঁড়ানোর পাশাপাশি সেই আতঙ্ক বা ভয়কে জয় করতে উৎসাহ আর অনুপ্রেরণা যোগাচ্ছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..