একদল হিংস্র কুকুরের আক্রমণে প্রাণ গেল দূর্জয়ের।

মাহতাবউদ্দিন চৌথুরী (চট্টগ্রাম থেকে): একদল হিংস্র কুকুরের আক্রমণে প্রাণ গেল দূর্জয়ের দুর্জয় হলো এমন – যাকে সহজে জয় করা কিংবা দমন করা যায় না। তাই মা বাবা সন্তানের নাম রেখেছিল দূর্জয় দেব নাথ। নিয়তির নির্মম পরিহাস এই দূর্জয়ের প্রাণ কেড়ে নিল আজ শুক্রবার সকালে একদল হিংস্র কুকুরের আক্রমণে।
নির্মম এ ঘটনাটা ঘটেছে গতকাল ৬ টায় হাটহাজারী উপজেলার ফরহাদাবাদ মন্দাকিনী গ্রামে। মন্দাকিনী নাথপাড়া নিবাসী হতদরিদ্র দিনমজুর প্রদীপ নাথের বড় সন্তান দূর্জয়। দূর্জয় ফরহাদাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট শ্রেণীর ছাত্র এবং ফরহাদাবাদস্হ শ্রীশ্রী মুক্তিপ্রদায়নী গীতা ও নীতি শিক্ষা কেন্দ্রের শিক্ষার্থী।
আজ সকাল ৬ টার দিকে তার বাবা প্রদীপ নাথ বাড়ীর পশ্চিম দিকে অদুরে একটি গাছ কাটতেছিল। গাছের কাটা টুকরো (চেলি) আনার জন্য দূর্জয় একটা খাঁচা নিয়ে বাবার কাছে যাচ্ছিলো। এমন সময় পথমধ্যে হঠাৎ ৭/৮ টি হিংস্র কুকুরের উপর্যুপরি আক্রমণে ক্ষতবিক্ষত হয়ে যায়। দূর্জয়ের আর্তচিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে মুমূর্ষু ও রক্তাক্ত অবস্থায় কুকুরের কবল থেকে উদ্ধার করে। পরে হতদরিদ্র প্রদীপ বাড়ীর এক শুভাকাঙ্ক্ষী থেকে টাকা ধার করে মুমূর্ষু ও রক্তাক্ত আদরের সন্তান দূর্জয়কে নিয়ে চিকিৎসার জন্য ছুটে চট্টগ্রাম শহরের দিকে। প্রথমে ফৌজদারহাট এক হাসপাতালে, ওখানে এক ঘন্টা ধরে বিনাচিকিৎসায় পড়ে থাকার পর মুমূর্ষু ও রক্তাক্ত এই ছেলেকে নিয়ে ছুটে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালের দিকে। ওখানেও একই অবস্থা করোনা রোগীর চিকিৎসা নিয়েই ব্যস্ত জরুরী বিভাগের সকলে। কে শুনে এ আর্তনাতের ডাক। অবিরত রক্তক্ষরণের ফলে বেলা ২ টার দিকে ওখানেই চিরনিদ্রায় শায়িত হয় দূর্জয়। অনেকটা চিকিৎসার অভাবেই অকালে ঝরে চলে গেল একটি প্রাণ।
মৃত্যু কালে দূর্জয়ের বয়স হয়েছিল ১১ বছর। অকাল প্রয়াত দূর্জয় মা বাবা এবং দেড় বছর বয়সী এক ছোট ভাই সহ অনেক সহপাঠী ও স্বজনদের রেখে যায়।
দূর্জয় তোমার অকাল প্রয়াণে আমরা খুবই মর্মাহত ও ব্যাতিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.