ঘূর্ণিঝড় আম্ফান পরিস্থিতিতে সোনাগাজী উপকূলের ৩৩ টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত

ফেনী প্রতিনিধি: বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলের দিকে ধেয়ে আসছে। এ পরিস্থিতিতে সম্ভাব্য দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রস্তুতি নিয়েছে ফেনীর সোনাগাজী উপজেলা প্রশাসন। সোনাগাজী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অজিত দেব জানান, ইতোমধ্যে সোনাগাজীর উপকূলীয় ইউনিয়ন গুলোর আশ্রয়কেন্দ্র সমূহ প্রস্তুত রয়েছে। আশ্রয়কেন্দ্রে লোকজন ও গবাদিপশু সরিয়ে আনতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। সন্ধ্যার পরেই লোকজনকে আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে আসা হবে। তিনি আরো জানান ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ সৃষ্ট পরিস্থিতি মোকাবেলায় সোনাগাজীতে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে।

প্রস্তুতির বিষয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ নোমান বলেন, উপজেলার ৫৬টি সাইক্লোন শেল্টারের ব্যবহার উপযোগী ৩৩টিতে আশ্রয়দানের প্রস্তুতি চলছে। এছাড়াও উপকূলীয় অঞ্চলে ২৫ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জনগণের আশ্রয়ের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

সব মিলে ২৫ হতে ৩০ হাজার মানুষকে আশ্রয় দেয়া যাবে। তবে করোনার কারণে সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিতে সোনাগাজী পৌর এলাকায় শেল্টারেও মানুষজন সরিয়ে আনতে হতে পারে বলেন জানান তিনি। তবে তা পরিস্থিতির উপর নির্ভর করবে।

তিনি বলেন, স্বেচ্ছাসেবী সিপিপির টিম সকল ইউনিয়নে প্রস্তুত রয়েছে। ১১টি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। রাতে ১০ হাজার মানুষের খাবারের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ফেনীর উপ-পরিচালক তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী বলেন, ইতোমধ্যে ফেনীতে ৯০ শতাংশ ধান কেটে ঘরে তোলা হয়েছে। বাকি ১০ শতাংশ ধান দুর্যোগের পূর্বে ঘরে তোলা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.