1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১২:৩৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ভাদাইমা’ খ্যাত কৌতুক অভিনেতা আহসান আলী (৫০) মারা গেছেন সুনামগঞ্জে যুবলীগের উদ্যোগে শুকনো খাবার ও বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বিতরন চুয়াডাঙ্গা টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে মোটর ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ কোর্সের শুভ উদ্বোধন সভাপতি পদে হেরে শিক্ষকসহ দুই জনকে মারধর দুর্গাপুরে নেতাই নদীতে নিখোঁজ যুবকের ২৪ ঘন্টা পর লাশ উদ্ধার টেকনাফের নয়াপাড়া সদর ২,০০০ পিস ইয়াবাসহ তিনজন গ্রেফতার। শিক্ষকের মারের চোটে হাসপাতালে শিক্ষার্থী রংপুর মেডিকেলে প্রথম বারের মত এন্ডোস্কপিক ব্রেইন টিউমার অস্ত্রোপচার সম্পন্ন নাঙ্গলকোটে শাহ্ আলী সুপার বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুকুরে, প্রাণ গেল মাছ ব্যবসায়ীর

করোনায় আক্রান্ত-মৃত্যু বাড়লেও ঈদের কেনাকাটা থেমে নেই

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২১ মে, ২০২০
  • ১৩১ বার

রাকিব আহমেদ (রাকিব) :/ রাজধানীসহ সারাদেশের ৪২টি করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ ল্যাবরেটরিতে গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১১ হাজার ১৩৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয়েছে ১০ হাজার ২০৭টি নমুনা। এর মধ্যে রিপোর্টে এক হাজার ৬১৭ জনের করোনা পজিটিভ আসে। একই সময়ে করোনাভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে ১৬ জনের।

করোনাভাইরাসের এ পরিস্থিতিতেও ঈদের কেনাকাটা থেমে নেই। অধিকাংশ মার্কেট বন্ধ থাকলেও হাতেগোনা যে কয়েকটি খোলা আছে, সেগুলোতে কেনাকাটার জন্য ভিড় করছে বিভিন্ন বয়সী নারী-পুরুষ ও শিশুরা।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা প্রতিদিনই অত্যাবশ্যক প্রয়োজন ছাড়া এই মুহূর্তে ঘরের বাইরে থাকাটা অনিরাপদ বলে সতর্ক করলেও, তা অনেকেই মানছেন না। বিভিন্ন মার্কেটে ভিড় দেখে বিন্দুমাত্র বোঝার উপায় নেই করোনাভাইরাস সংক্রমণের কোনো ঝুঁকি রয়েছে। যারা বাইরে বের হচ্ছেন তাদের সিংহভাগ যদিও মাস্ক ব্যবহার করছেন, তবে কেনাকাটা করতে গিয়ে তারা শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়টি বেমালুম ভুলে যাচ্ছেন।

বুধবার (২০ মে) দুপুরে রাজধানীর নিউ সুপার মার্কেটের সামনে গিয়ে দেখা যায়, অসংখ্য ক্রেতা লাইন ধরে মার্কেটে প্রবেশ করছে। মার্কেটে প্রবেশের আগে তাদের মেশিন দিয়ে জ্বর মেপে এবং জীবাণুমুক্ত মেশিনের সাহায্যে স্যানিটাইজার ছিটিয়ে তবে মার্কেটে প্রবেশ করানো হচ্ছে। তবে কেউ কেউ যে মাস্ক ছাড়াই প্রবেশ করছেন, তা মার্কেট কমিটির লোকজনের মাইকিং করে এ তথ্য প্রচার থেকে জানা যায়।

নিউমার্কেট, ঢাকা কলেজ, সায়েন্স ল্যাবরেটরি, এলিফ্যান্ট রোড এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, ফুটপাত থেকে শুরু করে অভিজাত আড়ং ও ইয়োলো’র দোকানগুলোতে ক্রেতাদের ভিড় বেশি। সবচেয়ে বেশি ভিড় দেখা যায় রাস্তার পাশের ছোট দোকানগুলোতে। আশপাশের বড় বড় মার্কেট বন্ধ থাকায় এগুলোতে ভিড় করছেন ক্রেতারা।

অধিকাংশ ক্রেতা জানান, ঈদের কেনাকাটা নয়, করোনার কারণে বেশকিছু দিন মার্কেট বন্ধ থাকায় নিত্যপ্রয়োজনীয় পোশাক কিনতে বের হয়েছেন।

রাস্তা-ঘাটে গণপরিবহন না চললেও প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস, মোটরসাইকেল, পিকআপ ভ্যান, সিএনজিচালিত অটোরিকশা অবাধে চলাচল করছে।

রাজধানীর বিভিন্ন রাস্তা-ঘাট ও মার্কেটের সামনে সেনা সদস্যদের টহল গাড়ি ঘুরে বেড়ালেও তারা জনগণকে সতর্ক করতে শুধুমাত্র মাইকিং করছেন। শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার কথা বললেও যারা তা মানছেন না তাদের মানতে বাধ্য করার কোনো ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে দেখা যাচ্ছে না।

অনেকেই জীবিকার তাগিদে ঘরের বাইরে বের হচ্ছেন। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে রাজধানী ঢাকা সবচেয়ে বেশি করোনা সংক্রমণের ঝুঁকিতে থাকলেও, এখানকার বাসিন্দাদের মধ্যে ঈদের কেনাকাটার প্রবণতা বেশি লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..