রোববার থেকে সীমিত আকারে ব্যান্ক লেনদেন ১০টা থেকে বিকেল ৪।

লাল সবুজ প্রতিবেদকঃ করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ পরিস্থিতিতে গত ২৬ মার্চ থেকে টানা ৬৭ দিনের চলমান সাধারণ ছুটি আগামী ৩০ মে শেষ হচ্ছে। ফলে আগামী ৩১ মে রোববার থেকে স্বাভাবিক ব্যাংকিং কার্যক্রম চালু হবে। ওইদিন থেকে পূর্বের সময়সূচি অনুযায়ী ব্যাংকের লেনদেন হবে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত। আর লেনদেন পরবর্তী ব্যাংকের আনুষঙ্গিক কার্যক্রম সম্পাদনের জন্য শাখা ও প্রধান কার্যালয় বিকেল ৬টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। তবে করোনা ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় সীমিত ব্যাংকিং কার্যক্রম চলবে।

বৃহস্পতিবার (২৮ মে) বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিপার্টমেন্ট অব অফ-সাইট সুপরভিশন থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়ে একটি সার্কুলার জারি করা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, স্বাভাবিক লেনদেন চালু হলেও স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস প্রতিরোধ সংক্রান্ত স্বাস্থ্যবিধি পরিপূর্ণ পরিপালন করতে বলা হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদফতর ও সংশ্লিষ্ট প্রশাসন কর্তৃক ঘোষিত করোনাভাইরাস সংক্রমিত মাঝারি ও উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় অবস্থিত ব্যাংক শাখাসমূহ দৈনিক ব্যাংকিং লেনদেন পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত সকাল ১০টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত হবে। এক্ষেত্রে লেনদেন পরবর্তী আনুষঙ্গিক কার্যক্রম সম্পাদনের জন্য সংশ্লিষ্ট শাখা এবং প্রধান কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগ প্রয়োজনীয় বিকেল ৪টা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে।

ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা সর্ম্পকিত সংশ্লিষ্ট স্থানীয় প্রশাসন স্বাস্থ্য বিভাগ এ নির্দেশনা নির্ধারিত হবে। পাশাপাশি এসব এলাকায় অবস্থিত শাখার তালিকা বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিপার্টমেন্ট অব অফ-সাইট সুপরভিশনে জানাতে হবে।

সমুদ্র, স্থল ও বিমানবন্দর এলাকায় (পোর্ট কাস্টম এলাকায়) অবস্থিত ব্যাংকের শাখা বুথ সপ্তাহের ৭ দিন ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখার বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

সরকার কর্তৃক ঘোষিত নির্দেশনা অনুসারে গণপরিবহন চলাচল সীমিত থাকাকালীন সময়ে প্রয়োজনে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অফিসে যাতায়াতের জন্য ব্যাংকে নিজ দায়িত্বে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

অফিসের কর্মপরিবেশে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। ঝুঁকিপূর্ণ ব্যক্তি, অসুস্থ কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং সন্তান সম্ভাবা নারীদের কর্মস্থলে উপস্থিত হতে বিরত রাখার ব্যবস্থা করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.