ফের এলাকাবাসীর জমি দখলের অভিযোগ চৈতি গ্রুপের বিরুদ্ধে।


জামাল উদ্দিন স্বপন

আবারও অবৈধভাবে অন্যের জমি দখল করে তার উপর দিয়ে ডাইংয়ের দূষিত পানি নিষ্কাশনের জন্য পাইপ বসানোর অভিযোগ উঠেছে চৈতি কম্পোজিট লিমিটেড এর বিরুদ্ধে। এর আগেও একই অভিযোগে স্থানীয় সাংসদের হস্তক্ষেপে অবৈধভাবে দখল ও ডাইংয়ের দূষিত পানি নিষ্কাশনের জন্য পাইপ বসানো বন্ধ করা হয়েছিলো।

সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা যায়, নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে অবস্থিত চৈতি গ্রুপের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে সাধারণ অসহায় এলাকাবাসী। এলাকায় কথিত আছে ” উপরে আল্লাহ নিচে কালাম সাহেব, মাঝে আর কিছু নাই “। তারই জলন্ত প্রমান দীর্ঘদিন যাবৎ চৈতির ডায়িংয়ের দূষিত পানি ফেলে সোনারগাঁয়ে মারাত্মক পরিবেশ দূষণ করছেন, ফলে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বহুবার প্রতিবাদ, বিক্ষোভ, স্মারক লিপি, লিখিত অভিযোগ করা হলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। উল্টো অভিযোগকারীরাই পুলিশের নির্যাতন ও হুমকির শিকার হয়েছেন।

ভুক্তভোগী প্রবাসী শাকিল রানা বলেন, আমর বড় ভাই, আমি ও আব্বু বিদেশে আছি এই সুযোগে আমাদের জায়গা দখল করে ডাইং এর পানি নিষ্কাশনের জন্য পাইপ বসানোর কাজ শুরু করে এসময় আমার পরিবারের অন্য সদস্যরা কাজে বাধা দিলে তাদেরকে কোম্পানির পালিত ভাড়া করা সন্ত্রাসী মোশারফ হোসেন বিভিন্ন ভয়-ভীতি দেখায় এবং বাধা অমান্য করে জায়গা দখল করে ডাইং এর পানি নিষ্কাশনের জন্য পাইপ বসানোর কাজ শুরু করে যাচ্ছে।

চৈতি কম্পোজিট এর ডি জিএম বদরুল আলম বলেন, তাদের সাথে বসে মীমাংসা করার পর পাইপ বসানোর কাজ করবো বললেও পুনরায় আবার কাজ চালু করে। পরবর্তীতে তার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন পুনরায় কাজ শুরু করার বিষয়ে আমি জানিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.