1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahmed : Sohel Ahmed
শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:২৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রাজধানীর বাজারগুলোয় কিছুটা কমেছে চালের দাম, বেড়েছে মুরগির দাম মুম্বাইয়ে ফের জঙ্গি হামলার হুমকি, সতর্কতা জারি বিএনপির আন্দোলনে জনগণ সাড়া দেয় না : আমু দেশের ৩২ জেলায় নিপাহ ভাইরাসের সংক্রমণ চন্দনাইশ হাশিমপুরে মিলাদ মাহফিলে শায়েখ মাও. হাসান আল- আজহারী ভৈরবে ছাত্রী অপহরণ মামলার আসামী গ্রেফতার সত্যিই আমরা স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে যাত্রা শুরু করেছি – শিক্ষামন্ত্রী পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর অবজ্ঞা আর রক্ত চক্ষু উপেক্ষা করে শক্ত অবস্থান নিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু : ড.কলিমউল্লাহ বাগেরহাটের রামপালে ০৯ (নয়) কেজির অধিক তামারসহ চোর চক্রের ০৩ জন সদস্য আটক জাপানি মেয়েসহ আত্মগোপনে থাকা বাবাকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব

করোনায় রোগী বাগাতে দালাল চক্রের ‘ভয়’ কৌশল।

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৭ জুন, ২০২০
  • ১২০ বার

!
নিজস্ব প্রতিবেদক
সরকারি হাসপাতালে করোনায় প্রতিদিন অনেক রোগী মারা যাচ্ছে। ওখানে চিকিৎসা নিরাপদ নয়-এমন সব আতঙ্কের খবর এখন হাতিয়ার হয়েছে দালাল চক্রের। মেডিকেল ভিলেজ খ্যাত শেরেবাংলা নগর ও শ্যামলীর বিশেষায়িত হাসপাতালগুলো ঘিরে তাদের দৌরাত্ম্য থাকে সারাবছরই। করোনা মহামারির মধ্যে এখন নতুন করে রোগীদের কব্জা করার ফাঁদ পেতেছে তারা। করোনার ভয় দেখিয়ে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে ঢাকায় সুচিকিৎসার জন্য আসা সাধারণ রোগীদের নিয়ে যাওয়া হচ্ছে প্রাইভেট ক্লিনিকের নামে গজিয়ে ওঠা অনুমোদনহীন বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে।
অভিযোগ আছে, এসব প্রতিষ্ঠানে রোগীদের ধরে নিয়ে যেতে পারলে মোটা অংকের কমিশন পায় দালাল চক্র। যাদের কাজই রোগীদের নানাভাবে প্রলুব্ধ করে ভাগিয়ে নেওয়া। সারা বছরই তাদের এসব অসাধু তৎপরতা চলে। এসব লোকের কবলে পড়ে যেমন অকালে প্রাণহানির অভিযোগ আছে, তেমনি ভুয়া চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসায় আজীবনের জন্য পঙ্গু হওয়ার নজিরও আছে বিস্তর। এদের কবলে পড়ে চিকিৎসার নামে দেউলিয়া হন অসহায় মানুষ।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা যায়, রাজধানীর জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউট, পঙ্গু হাসপাতাল, শিশু হাসপাতাল ঘিরে এমন বেশ কয়েকটি দালাল চক্র এখন বেশ সক্রিয়। এসব হাসপাতালের আশপাশে গড়ে উঠেছে ২৫টির বেশি ছোট বড় ক্লিনিক। উন্নত চিকিৎসার আশ্বাসে সরকারি হাসপাতাল থেকে বের করে আনা হয় এসব হাসপাতালে। এরপর রোগির পরিবার-স্বজনদের সর্বশান্ত করে ছেড়ে দেওয়া হয়।

এদিকে চক্রটি ধরতে গত রাত থেকে অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযানে আগারগাঁও পঙ্গু হাসপাতাল কেন্দ্রীক ছয় দালাল এবং শ্যামলীর সেবিকা হাসপাতাল থেকে একজন ভুয়া চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

জানা যায়, দালাল চক্রটি প্রথমে হাসপাতালগুলোর আশেপাশে অবস্থান করে। এরপর প্রত্যন্ত এলাকা থেকে নতুন কারা এসেছে তাদের টার্গেট করে। স্বজনদের কাছে গিয়ে বলে- এখানে কোন ধরনের চিকিৎসা হয় না, ডাক্তার থাকে না, ভর্তি হওয়া রোগী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যায় এমন নানান কথা বলে আতঙ্ক তৈরি করে। তাদের পরিচিত ক্লিনিক বা হাসপাতাল আছে সেখানে গেলে কম খরচে উন্নত চিকিৎসা মিলবে- এমন আশ্বাস দেয়। এরপর হাতুড়ি চিকিৎসক দিয়ে চলে চিকিৎসা। আর রোগ নির্ণয়ে বিভিন্ন পরীক্ষা, বেড খরচ, চিকিৎসক ফিসসহ বিভিন্ন খাতে হাতিয়ে নেওয়া হয় মোটা অংকের টাকা। অনেক সময় সড়কদুর্ঘটনায় আহত অনেককে ভুয়া চিকিৎসক দিয়ে অপারেশন করে চিরতরে পঙ্গু করে দেওয়ারও অভিযোগ রয়েছে। চিকিৎসার নামে হাসপাতালগুলোতে এমন অপচিকিৎসা দীর্ঘদিনের।

র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার (পুলিশ সুপার) মুহাম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, ‘সরকারি এসব হাসপাতাল ঘিরে প্রায় পাঁচশতাধিক দালাল চক্রের সদস্য রয়েছে। তাদের অত্যাচার দিন দিন বাড়ছেই। সরকারি এসব হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স, অ্যাম্বুলেন্সসহ প্রতিটি সেক্টরে তাদের ব্যাপক প্রভাব। অনেক সময় প্রত্যন্ত অঞ্চল হতে আসা নিরীহ রুগীদের হাসপাতালে ভর্তি হতে এসব দালাল বাধা সৃষ্টি করে। বিশেষ করে দালালরা এসব সরকারি হাসপাতালে ডাক্তার থাকে না, রুগীর হাত পা কেটে ফেলে, পঙ্গু হয়ে যায় এসব মিথ্যা রোগী ও তাদের স্বজনের মধ্যে ছড়ায়।’
এসব সরকারি হাসপাতালে প্রতিনিয়ত করোনায় অনেক রোগী মারা যাচ্ছে এমন গুজব ছড়িয়ে অনেককে আশপাশের ক্লিনিক বা বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছে বলে। রোগী ভেদে তারা পাঁচ থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত দালালির ভাগ পেয়ে থাকে বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।
এদিকে ভুয়া ডাক্তার ও পাঁচ দালালকে গ্রেপ্তারের পর তাদের বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে।
র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু বলেন, ‘সেবিকা হাসপাতালের পরিচালক, ওটি ইনচার্জ (ভুয়া ডাক্তার) সাইফুল ইসলামকে একবছরের কারাদণ্ড ও দুই লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।’
এছাড়া রোগীদের মানসম্মত সেবা না দেয়া এবং নিয়মিত চিকিৎসক না থাকায় হাসপাতালের মালিক এম এম শাখাওয়াত হোসেনকে চার লাখ টাকা এবং ম্যানেজার মো. মহিবুল্লাহকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয় বলে জানান তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..