লালমাইয়ে শ্বশুর বাড়িতে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ:

জামাল উদ্দিন স্বপন
কুমিল্লার লালমাই উপজেলার পেরুল দক্ষিণ ইউনিয়নের দোশারীচোঁ গ্রামের প্রবাসীর স্ত্রী শাহীনুর আক্তার (২২) শ্বশুর বাড়িতে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (১৬ জুন) দুপুরের দিকে পেরুল দক্ষিণ ইউনিয়নের দোশারীচোঁ গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার নোয়াবাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ছয় দুই বছর পূর্বে দোশারীচোঁ গ্রামের তৈয়ব আলী এর পুত্র ওমান প্রবাসী কাজী জাফরের সঙ্গে বিয়ে হয় শাহীনুরের। নিহত শাহীনুর পাশ্ববর্তী লাকসাম উপজেলার কোয়ার গ্রামের সিরাজুল ইসলামের মেয়ে। কাজী জাফর ও শাহীনুর দম্পতির নুর মোহাম্মদ নামের চার বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। নিহতের পরিবারের অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই তার স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন যৌতুকের জন্য বারবার গৃহবধূ শাহীনুরকে নির্যাতন করে আসছে। এক পর্যায়ে নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী ওই গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম মিলন জানায়, গতকাল দুপুরবেলা তৈয়ব আলী ও তার স্ত্রী পেয়ারা বেগম নিহত শাহীনুরের সাথে ঝগড়ার এক পর্যায়ে মারধর করে আমি গিয়ে তাদের মিলমিশ করে দেই। আমি চলে আসার পর পুনরায় আবার তারা শাহীনুরকে মারধর করে। শ্বশুর তৈয়ব আলী শাহীনুরের তলপেটে লাথি মারে এতে তার মৃত্যু হয়েছে বলে আমি ধারণা করছি। তৈয়ব আলী পূর্বে ও এভাবে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে তবে তিনি জানান।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তার লাশ উদ্ধার করে লালমাই থানা পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে।

বিয়ের পর থেকে এ ৬ বছরের মধ্যে পুত্রবধূকে নির্যাতনের ঘটনায় অনেকবার পারিবারিক ভাবে শালিস বৈঠক হয়েছিল বলে সূত্রে জানা গেছে।

নিহতের মামা অলিউল্লাহ জনান, তারা শাহীনুরকে নির্মমভাবে নির্যাতন করে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছে। তিনি কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, শিশুকাল থেকেই শাহীনুর নানার বাড়িতে থাকতো, এখানেই বেড়ে উঠেছে সে। শাহীনুরকে নির্মমভাবে হত্যার মাধ্যমে তার চার বছরের শিশুকে যারা এতিম করে দিয়েছে আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে সেসব হত্যাকারীদের বিচার চাই।

এব্যাপারে নিহত শাহীনুরের মা সেতারা বেগম বাদী হয়ে লালমাই থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

লালমাই থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ আইউব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে বিস্তারিত জানা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.