1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahmed : Sohel Ahmed
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বাগেরহাটের রামপালে ০৯ (নয়) কেজির অধিক তামারসহ চোর চক্রের ০৩ জন সদস্য আটক জাপানি মেয়েসহ আত্মগোপনে থাকা বাবাকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব সুস্থ-সবল-জ্ঞান-চেতনাসমৃদ্ধ দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ মানুষের দেশ গড়তে চেয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু : ড.কলিমউল্লাহ শিক্ষাকে বাণিজ্যিক পণ্য বানাবেন না: রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশ আলো থেকে আর অন্ধকারে ফিরে যাবে না – ওবায়দুল কাদের শেরপুরে ক্ষেতজুরে সূর্যমুখী ফুল গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় প্রতিবেশির জায়গা দখল করে বসতবাড়ি নির্মান করছে প্রভাবশালীরা বিশ্বনাথে উপজেলা আ’লীগের ভালবাসায় সিক্ত ভারপ্রাপ্ত পৌর মেয়র রফিক হাসান সাংবাদিক আলমগীর নূরকে অপহরণ,হত্যা প্রচেষ্টা; সন্ত্রাসী ও গডফাদারদের গ্রেপ্তার দাবী সুইডেনে কোরআন পোড়ানোর প্রতিবাদে কালিগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

অসহায় বৃদ্বা মা ছেলে আকরাম শেখ, হাবিলদার (সশস্ত্র) কে হারিয়ে আজও ছেলেকে খুজে বেড়ায় পুলিশের মাঝে।

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২২ জুন, ২০২০
  • ১৫৪ বার

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কালে, ফাতেমা খালা আকস্মিক ভাবে ব্যাগে কিছু কাঁচা-পাকা আম উপহার হিসেবে নিয়ে বাগেরহাট সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ, জনাব মাহাতাব উদ্দিন এর অফিস কক্ষে হাজির হন। ওসি সাহেব খালাকে আম নিয়ে আসছেন কেন? উত্তরে খালা জানায় তাহার মনে ভালো লাগছে সেজন্য ওসি সাহেব ও তার ছেলে মেয়ের জন্য নিয়ে আসছেন।

যাইহোক খালা বর্তমানে বৃদ্ধ এবং শারীরিকভাবে কিছুটা অসুস্থ। বয়স অনুমান ৭৫ বছর। বাড়ি বাগেরহাট সদর থানাধীন কাড়াপাড়া ইউপির অন্তর্গত বাগমারা গ্রামে। বাগেরহাট পুলিশ বিভাগের কাছে ফাতেমা বেগম, পুলিশ এর খালা হিসেবে বেশি পরিচিত।তিনি মাঝেমধ্যে বাগেরহাট পুলিশ লাইন্সে ও বাগেরহাট সদর মডেল থানায় আসেন।
তার অবশ্য একটি কারণ রহিয়াছে তার ছেলে আকরাম শেখ এক সময় পুলিশ বিভাগে চাকুরি করতো। আকরাম শেখ, হাবিলদার (সশস্ত্র) হিসেবে কেএমপি, খুলনায় চাকুরি করা কালীন জনসাধারণের নিরাপত্তা দিতে গিয়ে বেশ কয়েক বছর পূর্বে সন্ত্রাসী (সর্বহারা) কর্তৃক বোমা হামলায় খুন হয়।

তারপর থেকে ছেলের শোকে খালা কিছুটা মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে চলাফেরা করেন। অনেক সময় রাস্তাঘাটে ছোট-ছেলেমেয়ে খালাকে কিছুটা পাগলী মনে করে বিরক্ত করে।
আয় এর উৎস ভালো না থাকায় খালার আর্থিক অবস্থাও বেশি ভালো নহে।
পুলিশ দেখলেই খালা পুলিশের মধ্যে তার ছেলের স্মৃতি খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করেন।
মানবিক বিবেচনায় প্রায় দুই বছর পূর্ব হইতে বাগেরহাট সদর মডেল থানার ওসি হিসেবে,জনাব মাহাতাব উদ্দিন ব্যক্তিগতভাবে খালা কে প্রতিমাসে ১০০০ টাকা দিয়ে আসছেন।

পাশাপাশি বাগেরহাট জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব পংকজ চন্দ্র রায় পিপিএম স্যার, বিষয়টি জানতে পেরে মানবিক বিবেচনায় তিনিও প্রায় দুই বছর পূর্ব হতে প্রতিমাসে খালা কে ১৫০০ টাকা দিয়ে আসছেন।

খালা ছেলের শোক ভুলে গিয়ে, খালার জীবনের বাকি দিনগুলো ভালো কাটুক,বাগেরহাট সদর মডেল থানার অফিসার ও ফোর্সের এর পক্ষ থেকে, অফিসার ইনচার্জ জনাব মাহাতাব উদ্দিন আল্লাহর কাছে সেই কামনা করেন।

বর্তমানে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা আগের তুলনায় বেশি হওয়ায়,
করোনা ভাইরাসের মহামারী থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সরকারি বিধি বিধান মেনে চলি।
নিজে ভালো থাকি, সমাজ ও রাষ্ট্রকে ভালো রাখি। আল্লাহ সবাইকে ভাল রাখুক, সুস্থ রাখুক, আমিন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..