1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ১১:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
পাবনা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনের অযৌক্তিক ভাড়া নির্ধারণের প্রতিবাদে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু অধ্যবসায়ী নেতা ছিলেন: ড.কলিমউল্লাহ ঊনপঞ্চাশটি মোবাইল ফোনসহ পোনে এক লক্ষ টাকা উদ্ধার চুয়াডাঙ্গায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব এর ৯২তম জন্মদিন উপলক্ষে পুষ্পস্তবক অর্পন সহকারী অধ্যাপক হিসাবে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ দিচ্ছে বশেমুরবিপ্রবি শিবচরে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে শেখ কামাল’র জন্মবার্ষিকী পালিত বরগুনার তালতলীতে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন রংপুর চিড়িয়াখানায় জলহস্তি নুপুর ও কালাপাহাড় জুটির প্রথমবার বাচ্চা প্রসব রংপুরে অনুমোদনহীন ঔষধ কারখানায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান ঔষধ জব্দসহ অর্থদন্ড পাবনা ফরিদপুরে সন্ত্রাসীদের গ্রামবাসীর গণপিটুনি

আদালতের রায়ের পরও পুলিশি হয়রানির কারণে দখলে যেতে পারছে না মেঘনা ব্রিক ফিল্ডের মালিক।

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৫ জুলাই, ২০২০
  • ৭৩ বার

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া), বিজ্ঞ জেলা জজ আদালতের রায়ের পরও পুলিশি হয়রানির কারেণ দখলে যেতে পারছে না জেলার নাসিরনগর উপজেলার ভলাকুট ইউনিয়নের বালিখোলা মৌজার সেঃমেঃ ৭৮৩,১৮৬০ দাগে অবস্থিত মেঘনা ব্রিক ফিল্ডের মালিক মোঃ দানু মিয়া। প্রতিপক্ষের লোকজন পুলিশের সহযোগিতায় মালিক দানু মিয়া তার লোকজন সহ তার কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়–য়া দুই ছেলের নামেও একাধিক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগও করেন দানু মিয়া। জানা গেছে, ২০১২ সালের ১১ জুন ৮০ লক্ষ টাকার বিনিময়ে চাতলপাড় ইউনিয়নের দূর্গাপুর গ্রামের মৃনাল কান্তি দাসের নিকট থেকে ব্রিক ফিল্ডটি খরিদ করেন দানু মিয়া ও হিরা লাল রায়। তারপর থেকেই শুরু হয় তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা মামলা মোকদ্দমা। এমনকি পুলিশের সহযোগিতায় জোরপূর্বক লুন্ঠন করা হয় তার তৈরী করা ইট। তার লোকজনের উপর চলে কয়েকদফা আক্রমন। দানু মিয়ার বিরুদ্ধে থানা ও আদালতে দায়ের করা হয় একাধিক মিথ্য মামলা মোকদ্দমা। বেশ কয়েকটি মামলা আদালতে মিথ্যা প্রমানিতও হয়েছে। অবশেষে নিরুপায় হয়ে ব্রিকফিল্ডের মালিকানা দাবী করে ২০১৫ সালের ২৩ এপ্রিল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর বিজ্ঞ জজ আদালতে মৃনাল কান্তি ও তিন পুলিশ কর্মকর্তাসহ ৮জনের বিরুদ্ধে দেওয়ানী ৪৫/১৫ মামলা দায়ের করেন দানু মিয়া। বিজ্ঞ আদালত দীর্ঘ শুনানির পর ২রা ফেব্রæয়ারী ২০২০ তারিখে দানু মিয়ার মালিকানার পক্ষে রায় প্রদান করেন। বিজ্ঞ আদালতের রায়ের পরেও চাতলপাড় তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক রঞ্জন কুমার ঘোষের হয়রানির কারণে ব্রিকফিল্ডের দখলে যেতে পারছেন না বলে অভিযোগ করেন দানু মিয়া ও তার আইনজীবি এডভোকেট মাজহারুল আনোয়ার মেরাজ। তারা জানান, রায়ের পর কপি তাদের লোকের মাধ্যমে চাতলপাড় তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক ও মামলার আইও রঞ্জন কুমার ঘোষের নিকট পাঠানো হয়। রায়ের কপি হাতে পাওয়ার পরও দানু মিয়ার উপর বন্ধ হয়নি পুলিশী হয়রানি। বর্তমানে দানু মিয়া ও তার পরিবারের লোকজন পুলিশ পরিদর্শক রঞ্জন কুমার ঘোষের ভয়ে আতংকে রয়েছে বলে দাবী করেন দানু মিয়া ও তার আইনজীবি এডঃ মাজহারুল আনোয়ার। এ বিষয়ে জানতে চাইলে পুলিশ পরিদর্শক রঞ্জন কুমার ঘোষ রায়ের কোন কপি অফিসিয়ালভাবে পাননি বলে জানান তিনি।

মোঃ আব্দুল হান্নান,
নাসিরনগর,ব্রাহ্মণবাড়িয়া
মোবাঃ ০১৭১৭৩৫০৮৭৬

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..