1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১১:২৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
উদ্বাস্তু পুনর্বাসনে বঙ্গবন্ধু অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন: ড.কলিমউল্লাহ বঙ্গবন্ধু স্বপ্নচারী এবং দূরদর্শী ব্যক্তিত্ব ছিলেন: ড.কলিমউল্লাহ বিজিবির রাতভর অভিযানে ভোরে ৯ গরু জব্দ, আরো ৫১টি গরু পাহাড়ে চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও সার্জন,ভুয়া এমবিবিএস ও এমডি পদধারী প্রতারক ডাক্তার আটক র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ে বসবাসকারীদের জন্য ১৯টি আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে ঈদগাঁও বাজারে চাঁদা দাবির অভিযোগ! বিশ্ব বাবা দিবস উপলক্ষে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হারাগাছ সাহিত্য সংসদের সাহিত্য আসর অনুষ্ঠিত। রংপুরের গংচড়ায় বিধবা ভাতা ও একটি টিনের ঘরের জন্য আকুতি জানিয়েছেন রুনা লায়লা গ্লোবাল টিভির সাংবাদিকদের উপর হামলার প্রতিবাদ ও সন্ত্রাসী মুন্নার গ্রেফতারের দাবিতে সাভারে বিভিন্ন কর্মসূচী

রৌমারীতে করোনায় ব্যবসায়ীদের দুর্দিন।

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১১ জুলাই, ২০২০
  • ৭০ বার


মাসুদ রানা রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি
বর্তমান করোনা ভাইরাসের বিষাদময় পরিস্থিতিতে বন্ধ রয়েছে দেশের প্রায়
সকল প্রকার সরকারি, বে-সরকারী সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান। এতে পেশা
টিকিয়ে রাখতে হিমশিম খাচ্ছে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার সাউন্ড
সিস্টেম ও ডেকোরেটর ব্যবসায়ীরা।
১১ জুলাই (শনবিার) উপজেলার বিভিন্ন বাজার সরেজমিনে গিয়ে দেখা
গেছে, অধিকাংশ দোকান খোলা থাকলেও নেই কাজের ব্যস্ততা। কাজ বিহীন
সকাল আর সন্ধ্যা কাটে। দিন শেষে হিসাবের খাতা শূন্য। একদিকে বন্ধ
রয়েছে আয়, অন্যদিকে বাড়ছে ব্যয়। শেষ হয়ে যাচ্ছে জমানো সঞ্চয়। ফলে
সংকটময় দিন পাড় করছেন এ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত প্রায় দেড় শতাধিক
পরিবার।
উপজেলায় প্রায় অর্ধ শতাধিক সাউন্ড সিস্টেম ও ডেকোরেটর ব্যবসায়ীসহ
শতাধিক শ্রমিক এ কাজের সাথে জড়িত রয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরে রোজগার
না থাকায় অসহায় অবস্থায় দিন যাপন করছেন তারা। সরকারিভাবে একবার ত্রাণ
দিলেও নামমাত্র পায়নি এই ব্যবসায়ীরা। তাই সরকারি ভাবে আর্থিক
সহায়তার আবেদন জানিয়েছেন উপজেলার সাউন্ড সিস্টেম ও ডেকোরেটর
ব্যবসায়ীরা।
উপজেলার রৌমারী বাজারের সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ী ওহাব ডিজিটাল
সাউন্ড সিস্টেমের তৈওফিকুল ইসলাম, মুজাহিদ মাইক সার্ভিস মাহবুর
রহমান মামুন , ডেকোরেটর আলী হোসেন, চাচা ভাতিজা ডেকোরেটর
মুকুল মিয়া, চরশৌলমারী সাথী সাউন্ড ও ডেকোরেটর সোহেল রানা তারা
সকলেই জানান, করোনাকালীন লকডাউনে আমাদের দোকান পুরোপুরিভাবে
বন্ধ ছিলো। বর্তমানে দোকান খুললেও করোনার কারণে সকল অনুষ্ঠানাদি বন্ধ
রয়েছে। আমাদের পরিবার এই ব্যবসার উপর চলে। তাছাড়া আমাদের দোকানে ৫
থেকে ৭ জন করে কর্মচারী আছে। তাদেরও বেতন দিতে পারছিনা।
দোকানমালিক কর্মচারীসহ সকলে মিলে পরিবার চালাতে হিমশিম খাচ্ছি।
সংকটময় অবস্থায় স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোন প্রকার
সহায়তা পাইনি। তাই সরকারের কাছে সহযোগিতা চাই।
রৌমারী সদর ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম শালু বলেন, অসহায়
ডেকোরেটর ব্যবসায়ীদের জন্য সরকারি ভাবে সহযোগীতা করার দরকার।এ বিষয় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল্লাহ জানান, ডেকোরেটর ও
সাউন্ড সিস্টেম ব্যবসায়ীদের এখনও কিছু দেওয়া হয়নি তবে ইউএনওথর
সাথে কথা বলে বিষয়টি দেখবো।
এ ব্যাপারে উপজেলা নিবার্হী অফিসার মো.আল ইমরান বলেন, অসহায়
ব্যবসায়ীরা যদি দরখাস্ত দেয় তাহলে আমি তাদের জন্য উপজেলা প্রসাশনের পক্ষ
থেকে সহায়তা করবো।
মাসুদ রানা
০১৭৫৭০৫৪৬৮৮

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..