1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১২:০৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
উদ্বাস্তু পুনর্বাসনে বঙ্গবন্ধু অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন: ড.কলিমউল্লাহ বঙ্গবন্ধু স্বপ্নচারী এবং দূরদর্শী ব্যক্তিত্ব ছিলেন: ড.কলিমউল্লাহ বিজিবির রাতভর অভিযানে ভোরে ৯ গরু জব্দ, আরো ৫১টি গরু পাহাড়ে চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও সার্জন,ভুয়া এমবিবিএস ও এমডি পদধারী প্রতারক ডাক্তার আটক র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ে বসবাসকারীদের জন্য ১৯টি আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে ঈদগাঁও বাজারে চাঁদা দাবির অভিযোগ! বিশ্ব বাবা দিবস উপলক্ষে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হারাগাছ সাহিত্য সংসদের সাহিত্য আসর অনুষ্ঠিত। রংপুরের গংচড়ায় বিধবা ভাতা ও একটি টিনের ঘরের জন্য আকুতি জানিয়েছেন রুনা লায়লা গ্লোবাল টিভির সাংবাদিকদের উপর হামলার প্রতিবাদ ও সন্ত্রাসী মুন্নার গ্রেফতারের দাবিতে সাভারে বিভিন্ন কর্মসূচী

যশোরের বেদে সম্প্রদায়ের মাঝে খাদ্য সামগ্রিক বিতরন।

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২১ জুলাই, ২০২০
  • ১০৭ বার

জলিল,বিশেষপ্রতিনিধিঃ
দেশে বর্তমান মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়েছে বেদে সম্প্রদায়। এ কারনে আর্থিক ভাবে চরম সংকটে পড়ায় জীবন জীবিকা কঠিন দূর্বিসহ হয়ে উঠেছে তাদের।

অভাব-অনটন আর অনিশ্চয়তার ভবিষ্যৎ নিয়ে দিন কাটাচ্ছেন যশোরের শার্শা উপজেলার বেদে সম্প্রদায়ের মানুষেরা। করোনার কারণে একদিকে যেমন কর্মহীন হয়ে পড়েছেন তারা, তেমনি অন্যদিকে বর্তমান পরিস্থিতিতেও স্বাভাবিক জীবন-যাপনে ফিরতে পারছেনা তারা।

জীবিকার প্রয়োজনে কাজে নামলেও তাদের ফিরতে হচ্ছে অনেকটা শুন্য হাতে। যে কারণে পরিবার-পরিজন নিয়ে এক নিদারন দুশ্চিন্তায় পড়েছেন তারা। তিন-বেলা ঠিকমত খেতে না পারা এই বেদে স্প্রদায়ের মানুষেরা লকডাউনের মাত্র কয়েকটা দিন ত্রাণ সহায়তা পেলেও তাদের কাজে ছন্দ না ফেরায় জীবনের ছন্দে ভাটা পড়েছে। কষ্টে দিন কাটানো এসব মানুষকে সরকারি সহায়তা দেওয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ জানিয়েছেন দেশসেরা উদ্ভাবক মিজানুর রহমান মিজান।

সোমবার বিকালে বেদে সম্প্রদায়ের পরিবারের মাঝে খাবার ও মাক্স বিতরণকালে তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রত্যন্ত এলাকার গ্রাম-গঞ্জে গিয়ে সিঙ্গা দেয়া,দাঁতের পোকা উঠানো,নাভি কাটা ও পুকুরের মধ্যে হারানো জিনিস খুঁজে দেয়াসহ নানা কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন বেদে পরিবারের নারী-পুরুষরা।

গত ৩ মাস ধরে কাজে যেতে পারছেন তারা। কেউ কেউ পেটের টানে গ্রামে গেলেও করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আতঙ্কে ভয়ে তাদের কাছ থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন না মানুষ। বর্তমানে অনেকেই কাজে বের হওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন। এ কারণে পরিবার পরিজন নিয়ে কিভাবে দিন কাটাবেন এমন চিন্তায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন অসহায় এ ভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষেরা।

করোনায় স্বাভাবিক জীবনে নেমে আসা দূর্ভোগে কতটা কষ্টে দিন কাটছে তা মুখের ভাষায় প্রকাশ করা অসম্ভব বলে মনে করেন উদ্ভাবক মিজান। বেদে গোষ্ঠীর মুখে এখন একটাই বুলি, সরকারের কাছে আমরা আর্থিক ও ত্রাণ দিয়ে সহযোগিতা করার জন্য দাবি জানাচ্ছি।

করোনা সংকট কেটে গেলে নতুন সুর্যউদয়ের সাথে সাথে আবারো ঘুরে দাঁড়াতে পারবেন এমন দিনের অপেক্ষা করছেন বেদে পরিবারের মানুষ। বেদে সম্প্রদায়ের মানুষের মাঝে খাবার ও মাক্স বিতরণ কর্মসুচীতে লাইফ প্রোগ্রামে উদ্ভাবক মিজান বলেন,বেদে সম্প্রদায়ে মানুষেরা এমনিতেই কষ্টে দিন কাটায়।

তার উপর বর্তমানে করোনার কারনে থমকে গেছে তাদের জীবন-জীবিকা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মহোদয়ের নিকট আমার প্রার্থনা,বেদে সম্প্রদায়ের মাঝে যেন খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়। তাদের ছোট ছোট শিশু সন্তানদের জন্য যেন লেখা পড়ার সু-ব্যবস্থা থাকে। পাশাপাশি তাদের জন্য প্রতিটি উপজেলাতে যেন একটি করে বেদে পল্লী তৈরি করা হয়।

প্রতিদিনের খাবার ও মাক্স বিতরণের কর্মসূচীতে বেদে সম্প্রদায়ের মাঝে খাবার ও মাক্স বিতরণে অংশ গ্রহণ করেন তরুন সমাজ সেবক ও উদ্যোগক্তা বাদল নার্সারীর পরিচালক মোঃ বাদল হোসেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..