1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১২:৩৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ভাদাইমা’ খ্যাত কৌতুক অভিনেতা আহসান আলী (৫০) মারা গেছেন সুনামগঞ্জে যুবলীগের উদ্যোগে শুকনো খাবার ও বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বিতরন চুয়াডাঙ্গা টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে মোটর ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ কোর্সের শুভ উদ্বোধন সভাপতি পদে হেরে শিক্ষকসহ দুই জনকে মারধর দুর্গাপুরে নেতাই নদীতে নিখোঁজ যুবকের ২৪ ঘন্টা পর লাশ উদ্ধার টেকনাফের নয়াপাড়া সদর ২,০০০ পিস ইয়াবাসহ তিনজন গ্রেফতার। শিক্ষকের মারের চোটে হাসপাতালে শিক্ষার্থী রংপুর মেডিকেলে প্রথম বারের মত এন্ডোস্কপিক ব্রেইন টিউমার অস্ত্রোপচার সম্পন্ন নাঙ্গলকোটে শাহ্ আলী সুপার বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুকুরে, প্রাণ গেল মাছ ব্যবসায়ীর

কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রামের নিম্নাঞ্চলে বন্যা বিপদ সীমার উপরে পানি

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই, ২০২০
  • ১৬০ বার

 

খন্দকার আবু সুফিয়ান (অষ্টগ্রাম), কিশোরগঞ্জ।

অতিবৃষ্টির কারনে হাওড়ের পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যায় নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। পাহাড়ী ঢল ও অতিবৃষ্টির কারনে হাওরের পানি বেড়েই চলছে। নিম্নাঞ্চল এলাকা প্লাবিত হয়ে নতুন নতুন এলাকায় বন্যা দেখা দিয়েছে। অষ্টগ্রাম উপজেলার নিম্নাঞ্চল এলাকার বাড়ি ঘর তলিয়ে যাচ্ছে। বাড়িতে পানি উঠে যাওয়ায় ঘরের মানুষ ঘরে মাচা বেধে কষ্ট করে বসবাস করছে। বৃষ্টির কারনে জেলেরা নদীতে মাছ ধরতে পারছে না। তাই বাজারে খাবার মাছ সহ তরকারী সামগ্রী পাওয়া যাচ্ছে না।

এমনিতেই হাওরের মানুষ বর্ষাকালে কাজের অভাবে কর্মহীন থাকে। অনেকে শহরে গিয়ে কাজ কর্ম করে কোন রকমে দিন যাপন করতো, করোনার কারনে শহরমূখী হাওড়ের মানুষ বাড়িতেই অলস সময় পার করছে, বর্তমানে হাওরের নিম্ন আয়ের মানুষের কষ্টের সীমা নাই।

একদিকে বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারনে সাধারন মানুষ কর্মহীন রয়েছে অন্যদিকে নতুন করে বন্যা দেখা দেওয়ায় হাওড় জনপদের মানুষ এখন কঠিন সময় পার করছে। কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রাম ইটনা মিঠামইন ও নিকলী উপজেলার নিম্নাঞ্চলে বন্যার কারনে গৃহপালিত পশু, মাছের ঘের ও পোল্ট্রি ফার্ম ব্যবসায়ীরা রয়েছে চরম ক্ষতির ঝুকিতে।

অষ্টগ্রাম উপজেলার কাস্তুল ইউনিয়নের ভাতশালা, বাহাদূর পুর, অষ্টগ্রাম সদর ইউনিয়নের উত্তর হাওর এলাকার রাস্তা ডুবে গেছে, পোষ্ট অফিস সংলগ্ন এলাকার রাস্তা পানির নিছে তলিয়ে গেছে, পূর্ব অষ্টগ্রামের ইকুরদিয়া রোড সহ বেশ কিছু এলাকা প্লাবিত হয়েছে, আদমপুর ও আব্দুল্লাপুর ইউনিয়নের বহু এলাকা বন্যায় প্লাবিত হয়েছে, উপজেলার দেওঘর ও বাংগাল পাড়া ইউনিয়নে বন্যার পানি বিপদসীর উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে, সাধারন মানুষ তাদের গৃহপালিত পশু ও ঘরে রক্ষিত একমাত্র অবলম্বন হাওড়ের অর্থনীতির প্রধান হাতিয়ার একফসলী ধান নিয়ে চরম বিপাকে রয়েছে।

এ ব্যাপারে অষ্টগ্রাম উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. রফিকুল আলমের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমরা উপজেলার যেসব এলাকা বন্যায় প্লাবিত হয়েছে সেসব এলাকার ত্রান চাহিদা জেলা প্রশাসন বরাবর পাঠানো হয়েছে, আশা করছি চাহিদা অনুসারে দ্রুত সরকারী ত্রান আমাদের হাতে পৌছবে, আগামীকাল আমরা বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন ও সল্প আকারে ত্রান বিতরন করব, দু একদিনের মধ্যে সরকারী ত্রান আমাদের হাতে আসার কথা রয়েছে, তখন বন্যা কবলিত সকল মানুষের কাছে ত্রান পৌছে যাবে, বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রগুলো প্রস্তুত রাখা হয়েছে, পরিস্তিতির আলোকে যা যা করার আমরা সব বিষয়ে প্রস্তুত রয়েছি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..