1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০১:৩১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বঙ্গবন্ধু পরম হিতৈষী মানব ছিলেন: ড.কলিমউল্লাহ ছাতকে লাফার্জহোলসিম এর ত্রান বিতরণঃ অন্যান্যদেরও এগিয়ে আসার আহবান জানালেন স্থানীয় এমপি ভৈরবে বিভিন্ন দল থেকে দুই হাজার লোকের আওয়ামীলীগে যোগদান বন্যার্তদের সহযোগিতার জন্য যশোর জেলা বিএনপির অর্থ সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু বঙ্গবন্ধু সারাটি জীবন মনুষ্য সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন: ড.কলিমউল্লাহ ভৈরবে এক হাজার পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ছাতক পিডিবির কর্মকতা ও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে মিটার চুরি ও ঘুষ দুর্নীতির অভিযোগ দুর্গাপুরে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা তুলে দিয়ে ১০০ টাকা রেখে দিচ্ছেন বিকাশ দোকানি রংপুরে তরুণীকে ধর্ষণ, ১৫ বছর পর ৩ জনের যাবজ্জীবন ফেনীর সোনাগাজীতে মোশারফ হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদত্যাগের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ।

বাঁশখালীতে গার্ড় অফ অনার ছাড়া মুক্তিযোদ্ধার দাফন খোবে মানববন্দন

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৮ জুলাই, ২০২০
  • ১৫৬ বার

মোঃআনোয়ার, বাঁশখালী প্রতিনিধি : চট্রগ্রামের বাঁশখালীতে বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রথম প্রতিবাদকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা মওলানা ছৈয়দ এর বড় ভাই মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ আলী আশরাফ ২৬ জুলাই মৃত্যুবরণ করিলে ২৭ জুলাই ১১ টার সময় তাহার জানাজা অনুষ্টিত হওয়ার সময় নির্ধারন করেন,উপজেলা মুক্তি যোদ্ধা ও আলী আশরাফের পরিবার, উক্ত সময়ে উপজেলা নির্বহী কর্মকর্তা বা সহকারী কমিশনার উপস্হিত না হওয়ায় গর্ড় অফ অনার ছাড়াই মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ আলী আশরাফের জানাজা ও দাপন সম্পুর্ণ হয়। এই নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন স্হানীয় মুক্তিযোদ্ধা ও ডাঃ আলী আশরাফের পরিবার।

তবে সরজমিনে দেখা যায়, জানাজার কিছুক্ষণ পর ফুল নিয়ে উপস্হিত হন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তার ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি)মোঃ তারেকুর রহমান, তারা উপস্হিত হয়ে মরহুমের কবর জেয়ারত ও ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেধন করেন এবং সঠিক সময়ে উপন্হিত হতে নাপারায় মরহুমের পরিবার ও উপস্হিত জনতার কাছে দুঃখ প্রকাশ করেন,এবং মরহুমের পরিবারের প্রতি সমবেধনা জানান,তবে থানা পুলিশ পরিদর্শক ওসি তদন্ত কামাল হোসেন, পুলিশ টিম নিয়ে আগে থেকে উপস্হিত ছিলো বলে জানা যায়। এই নিয়ে আজ ২৮ জুলাই উপজেলা পরিষদের সামনে কোনো রাষ্ট্রীয় মর্যাদা ছাড় মুক্তিযোদ্ধার দাপন হলো এর প্রতিকার চেয়ে মানবন্দন করেন, মুক্তিযুদ্ধা সংসদ ও তাদের সন্তান।

এবিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তার বলেন,অনেক দূরের এলাকা হওয়ায় এবং অপ্রশস্ত সড়কের দুপাশে জট থাকায় গাড়ি নিয়ে যেতে সমস্যা হওয়ায় তার বাসায় যথাসময়ে পৌঁছা সম্ভব হয়নি।

তিনি আরও জানান, দাফনের সময় তিনি জরুরি মিটিংয়ে ব্যস্ত ছিলেন। এ কারণে সহকারী কমিশনার (ভূমি) আতিকুর রহমানকে ওই মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে পাঠানো হয়েছিল। দূরের রাস্তা হওয়ায় পৌঁছার আগেই তার পরিবার দাফন সম্পন্ন করে। অবশ্যই পরে মুক্তিযোদ্ধার কবর জেয়ারত ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে সম্মাননা জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..