সোনাগাজীতে জামায়াত নেতার বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধার জমি দখলের অভিযোগ

 

সোনাগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি :
ফেনীর সোনাগাজী পৌর সভার ৭নং ওয়ার্ডে বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুল ইসলামের জমি দখলের পায়তারা করছে রাজাকারপুত্র ও জামায়াত নেতা গোলাম কিবরিয়াগং। বিরোধীয় জমি নিয়ে আদালতে মামলা থাকলেও দখলে নেয়ার চেষ্টায় লিপ্ত কিবরিয়াগং। বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিজুল ইসলাম জানায়, ১৯৫৫সালে ১৩৮৬নং সাফ কবলা দলিলে মুলে ৩০শতাংশ জমি ক্রয় করিয়া দীর্ঘদিন যাবত ভোগ দখলে আছেন। তিনি বার্ধক্য অবস্থায় চিকিৎসাধিন থাকার সুযোগে উপজেলা জামায়াত নেতা গোলাম কিবরিয়া , তার সহযোগী আবু সাঈদ ও আবদুল হাই হেলাল জোর পুর্বক উক্ত জমি দখলের পায়তারা করছেন। সম্প্রতি জোরপূর্বক চাষাবাদ করতে গেলে তাদেরকে তিনি তাদেরকে বাধা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে দখলবাজ সাঈদ ও হেলাল তাকে হত্যার হুমকি দেয় । এ ঘটনায় সোনাগাজী থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা মফিজুল ইসলাম। মুক্তিযোদ্ধা সন্তান মো. এমদাদুল ইসলাম জানায়, দখলবাজরা আমাদের জমি কৌশলে তাদের নামে রেকর্ড করে এবং জমাখারিজ করিয়ে নেয়। আমাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে তাদের ভূয়া জমাখারিজ বাতিল হয়েছে। উক্ত জমির বিরোধ নিস্পত্তির জন্য ফেনী আদালতে একটি মামলা বিচারাধিন আছে। জামায়াত নেতা গোলাম কিবরিয়া বলেন, ১৯৫৫ সালে ক্রয়সুত্রে চর ছান্দিয়া মৌজার দিয়ারা ৩৪৬৭ দাগে ২০১নং খতিয়ানে ৫৬ শতক জমির মালিক। ওই সুত্রে বিএস রেকর্ড ও জমাখরিজ আমাদের নামে হয়েছে এবং আমরা ভোগ দখলে আছি। গত কিছুদিন যাবত মফিজুল ইসলাম ও তার ছেলে উক্ত দাগে ৩০ শতক জমির দাবি করছেন। তাদের নথিপত্রে যে দাগ উল্লেখ আছে তার সাথে বিরোধীয় জমির কোন সম্পর্ক নাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.