1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ভৈরবে উপজেলা যুবদলের আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন সুজন কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ রাজারহাটে বর্ণাঢ্য আয়োজনে হানাদার মুক্ত দিবস পালিত রাজারহাটে সিংহীমারী উচ্চ বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ নতুন জঙ্গি সংগঠন পুলিশ সদস্যদের হত্যার মিশনে মাঠে নেমেছে: র‌্যাব বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি, কমতে পারে রাত ও দিনের তাপমাত্রা রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে ভূমিকম্প অনুভূত অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হতে দেশবাসীর প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবন ফিরোজার সামনে চেকপোস্ট বনানীতে জঙ্গি সন্দেহে একটি আবাসিক হোটেল অভিযান রাজধানীর বাজারে চালের দাম বাড়লেও কমেছে সবজির দাম

বকেয়া বেতনের দাবীতে পাবনা সুগারমিল শ্রমিক কর্মচারীদের ৭ দিনের আল্টিমেটাম

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৬ আগস্ট, ২০২০
  • ৮৩ বার

 

আলাউদ্দিন হোসেন,পাবনা : পাবনা দাশুড়িয়া সুগার মিলের শ্রমিক কর্মচারীদের ৬ মাসের বেতন-ভাতাসহ আখ চাষিদের ১১ কোটি টাকা বকেয়া পরিশোধের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে শ্রমিক কর্মচারী ও আখচাষীরা। বুধবার(২৬ আগস্ট)সকাল ১০টা থেকে দুপুর পর্যন্ত সুগার মিলের প্রধান ফটকে ও অফিস কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন শ্রমিকরা।
দফায় দফায় শ্রমিকরা মিছিল করে অফিস কার্যালয় ঘেরাও করে। বিক্ষোভ মিছিল শেষে অফিস কার্যালয়ের সামনে পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন শ্রমিক-কর্মচারি সংগঠনের সভাপতি সাজেদুল ইসলাম শাহীন, সহ-সভাপতি জাহিদুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক আশরাফুজ্জামান উজ্জল,দাশুড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ বকুল সরদার সাংগঠনিক সম্পাদক এমদাদ হোসেন ও দপ্তর সম্পাদক মাসুম হোসেন প্রমুখ।
এদিকে পাবনা সুগার মিলের সংশ্লিষ্ঠদের মাধ্যমে জানা যায়, এখনো ২৪ কোটি টাকা সমমূল্যের ৪ হাজার টন চিনি অবিক্রিত অবস্থায় গোদামজাত হয়ে আছে। এই অবিক্রিত চিনি বিক্রি হয়ে গেলে শ্রমিকদের এই বকেয়ার টাকা পরিশোধ করা সম্ভব হতো। বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ঠ দপ্তরের উর্ধতন কতৃপক্ষের কাছে শ্রমিকদের সমস্যার কথা জানালেও সমাধানে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছেনা তারা। সমস্যা সমাধানের জন্য চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।
বর্তমানে পাবনা সুগার মিলে নিয়মিত শ্রমিক রয়েছে ৪’শ জন,মওসুমি শ্রমিক রয়েছে ২’শ জন এবং চুক্তিভিত্তিক শ্রমিক রয়েছে ১’শ জন। শ্রমিক ও কর্মচারীরা টানা ৬ মাস বেতনভাতা এখনো পাননি। শ্রমিক-কর্মচারীদের বকেয়া এসে দাঁড়িয়েছে ৮ কোটি টাকায়। আর যারা এই মিলের আখ চাষি রয়েছে তাদের পাওনা আরো ৩ কোটি টাকা। বকেয়া বেতন ও ভাতা না পেয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে এই চিনি কলের সাথে সংশ্লিষ্ঠ শ্রমিক কর্মচারীরা। তাদের দাবী, আগামী সাতদিনের মধ্যে বকেয়া পাওনা পরিশোধ করা না হলে বৃহত্তর আন্দোলন ও কর্মসূচিতে যাওয়ার ঘোষনা দেন শ্রমিক নেতারা।
বর্তমান অবস্থা ও সমস্যা সমাধানের বিষয়ে কথা বলেন পাবনা সুগার মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইফ উদ্দিন আহম্মেদ তিনি বলেন, গত মৌশুমের অবিক্রিত ২৪ কোটি টাকার চিনি এখনো মজুদ আছে। এই চিনি বিক্রি হয়ে গেলে সমস্যার সমাধান হয়ে যেতো। শ্রমিকদের পাওনা টাকা পরিশোধের জন্য সংশ্লিষ্ঠ অধিদপ্তরকে অবহিত করা হয়েছে। কিন্তু দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও কোন নির্দেশনা আসেনি আমাদের কাছে। চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি দ্রুত এই সমস্যার সমাধানের। আশা করছি খুব দ্রুত এই সমস্যার সামান হবে।
তবে গত মৌসুমেও দেনার দায় মাথায় নিয়েই আখ মাড়াই কার্যক্রম শুর হয়েছিলো। সামনে নভেম্বর মাসে আবারো নতুন বছরের আখ মাড়াই শুরু হবে। তবে পাওনা টাকা না পেয়ে বেশ বিপাকে ও মানবেতর জীবন যাপন করছে এই মিলের সাথে সংশ্লিষ্ঠ শ্রমিক কর্মচারী ও আখ চাষিরা। সমস্যা সমাধানের জন্য সুগার মিল করপোরেশনসহ প্রধানমন্ত্রীর হস্তোক্ষেপ কামনা করেছেন শ্রমিকরা।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..