1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:১৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ভৈরবে উপজেলা যুবদলের আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন সুজন কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ রাজারহাটে বর্ণাঢ্য আয়োজনে হানাদার মুক্ত দিবস পালিত রাজারহাটে সিংহীমারী উচ্চ বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ নতুন জঙ্গি সংগঠন পুলিশ সদস্যদের হত্যার মিশনে মাঠে নেমেছে: র‌্যাব বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি, কমতে পারে রাত ও দিনের তাপমাত্রা রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে ভূমিকম্প অনুভূত অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হতে দেশবাসীর প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবন ফিরোজার সামনে চেকপোস্ট বনানীতে জঙ্গি সন্দেহে একটি আবাসিক হোটেল অভিযান রাজধানীর বাজারে চালের দাম বাড়লেও কমেছে সবজির দাম

ত্রিশালের কালীর বাজারে কাঁচা মরিচের দাম প্রতিকেজি তিনশত টাকা:

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৩১ আগস্ট, ২০২০
  • ১৬০ বার

 

ত্রিশালের কালীর বাজার ঘুরে মোঃ মোস্তাকিম:

বন্যার প্রভাবে সবজির বাজারে আগুন লেগেছে। কাঁচাবাজারে বেড়েছে সব ধরনের সবজির দাম। এক মাস ধরে চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সবজি। এই পুরো সময়ে সর্বোচ্চ দাম কাঁচামরিচের। ভালোমানের এক কেজি কাঁচামরিচ কিনতে এখন গুনতে হচ্ছে ২৮০ টাকা। তবে সাধারণ মানের আমদানি করা কাঁচামরিচ ৩০০/৩২০ টাকা কেজিতে পাওয়া যাচ্ছে। অন্যান্য সবজি বেশিরভাগ ৭০ থেকে ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বিক্রেতারা বলছেন, মরিচের দাম বেশ ঝাল। অবশ্য এর কারণও আছে। বন্যায় দেশের অনেক এলাকার ক্ষেত পানিতে তলিয়ে গেছে। যেসব এলাকার পানি নেমেছে। সেখানেও অতিবৃষ্টির কারণে আবাদ শুরু হয়নি। তা ছাড়া আগে থেকেই করোনা সংক্রমণের কারণে এবার সবজির আবাদ কম হয়েছে। সব কিছু মিলিয়ে সবজির বাজার বেসামাল হয়ে পড়েছে।

৩১ আগষ্ট সোমবার ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল উপজেলা ঐতিহ্যবাহী কালীর বাজারের হাটে ঘুরে চড়া দামে সবজি বিক্রি হতে দেখা গেছে। বাজারে আড়াই’শ গ্রাম কাঁচামরিচ মানভেদে বিক্রি ৮০ থেকে ৬০ টাকায়। কাঁচামরিচের কেজি ছিল জুন মাসে ৬০, জুলাই মাসের শুরতে ১০০ এবং শেষে ১৬০ টাকা। চলতি মাসের শুরুতে ২০০ টাকার মধ্যে থাকলেও এখন তা অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে গেছে।

অন্যান্য সবজির মধ্যে ঝিঙে ৬০, কাঁকরোল ৭০, বেগুন ৬০ও পটোল বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা কেজি দরে। চিচিঙ্গা, ধুন্দুল ও শসার কেজি ৭০ টাকা। প্রতিটি লাউ ও জালি ৩৫ থেকে ৪৫ টাকা। গত মাসের শুরুেেত এসব সবজি অর্ধেক দামে বিক্রি হয়েছে।

কালীর বাজারের কাঁচাবাজার সবজি ব্যবাসায়ীরা বলেন, পাইকারি আড়তে অনেক সময় সবজি কিনতে কাড়াকাড়ি করতে হয়। তখন দামের কোনো ঠিক থাকে না। এ কারণে বাজার ভেড়ে দামের পার্থক্য এখন বেশি দেখা যাচ্ছে। দেশি কাঁচামরিচ এখন ৩২০ টাকা কেজিতে কিনে বিক্রি করছেন।

বাজার করতে আসা কালীর বাজারের ক্রেতারা বলেন, আমরা যারা মধ্যবিত্ত বলে জানি। আগে জানতাম নিম্ন আয়ের মানুষ যারা তাদের নাভিশ্বাস উঠতো কিন্তু বর্তমান বাজারদর আমাদের নিম্ন আয়ের মানুষ বলে মনে হচ্ছে। সবসময় দেখি বৃষ্টি হলেই কাঁচামরিচের দাম বেড়ে যায়।

বর্তমান মহামারি করোনা ভাইরাসের মধ্যেও এর ব্যতিক্রম হলো না। ১৫ টাক পোয় বিক্রি হওয়া কাঁচামরিচ এক লাফে ৬০/৮০ টাকা হয়ে গেছে। কতদিন এই অবস্থা থাকবে তার ঠিক নেই। দাম যতই হোক মেনে নিতে হবে।
বাজারে এখন আগের তিনভাগের একভাগ সবজি বেশি আসছে। বাজারে গ্রামাঞ্চল থেকে সবজি বেশি আসে। এরপর এক মাস ধরে আশপাশের সবজি ক্ষেত তলিয়ে গেছে। এতে বাজারে সরবরাহ আরও কমেছে। তাছাড়া গ্রীষ্মকালীন এই সময়ে সবজির আবাদ কম থাকে।

একারণে অন্য এলাকার সবজিও তেমন আসছে না।পাইকারি আড়তে এখন মুহূর্তে সবজির দাম ওঠানামা করছে। এতে বাজারে কোন সবজির কত দাম, তা সঠিকভাবে বলা কঠিন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..