1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:৪৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ভৈরবে উপজেলা যুবদলের আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন সুজন কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ রাজারহাটে বর্ণাঢ্য আয়োজনে হানাদার মুক্ত দিবস পালিত রাজারহাটে সিংহীমারী উচ্চ বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ নতুন জঙ্গি সংগঠন পুলিশ সদস্যদের হত্যার মিশনে মাঠে নেমেছে: র‌্যাব বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি, কমতে পারে রাত ও দিনের তাপমাত্রা রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে ভূমিকম্প অনুভূত অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হতে দেশবাসীর প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবন ফিরোজার সামনে চেকপোস্ট বনানীতে জঙ্গি সন্দেহে একটি আবাসিক হোটেল অভিযান রাজধানীর বাজারে চালের দাম বাড়লেও কমেছে সবজির দাম

শেখ হাসিনার হাত ধরে আগস্টের শোক হউক অর্থনৈতিক মুক্তির শক্তি”

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৩১ আগস্ট, ২০২০
  • ১৭৭ বার

 

মোঃখোরশেদ আলম

বাংলাদেশের গ্রাম কথাটি মাথায় আসলে মন হয়, নাগরিক সুযোগ-সুবিধাহীন এক ক্ষুদ্র জনপদ। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সারা দিয়ে রক্তক্ষয়ী নয় মাস যুদ্ধ করে স্বাধীনতা পায় বাংলাদেশ নামক দেশটি।মহান মুক্তিযুদ্ধের পর ৭ কোটি মানুষের এই বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে স্বাধীনতা অর্জনের পরে নজর দেন জাতির পিতা এই দেশের অর্থনৈতিক মুক্তির দিকে।যু্দ্ধে ক্ষতিগ্রস্ত এই স্বাধীন বাংলাদেশ হাঁটি হাটি পা পা করে সেই লক্ষ্যে অগ্রসরমান ছিলো। যে পাকিস্তান বঙ্গবন্ধুর পাহাড় সমান সাহসের নিকট পরাজিত হয়ে ছিল,৯৩ হাজার সৈন্য কে পরাজিত হতে হয়েছিল,সেই বঙ্গবন্ধু কে স্বপরিবারে হত্যা করে ছিল, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বাধীন বাংলাদেশ সরকারী চাকরি করা সেনাবাহিনীর লোকের হাতে।

আমি এই কথা মানি না,আমার মত হাজারো অর্থনৈতিক মুক্তিকামী জনতাও মেনে নেবে না।জাতির পিতা কে হত্যা করে ছিল কতিপয় বিপদগামী সেনা সদস্য নয়,১৯৭১ সালের পরাজিত শক্তি ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী পাকিস্তানের দালাল চক্রের গভীর ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে। ওরা জানেনা বাংলাদেশের সদ্য স্বাধীন হওয়া বিশাল আকাশের বুকে, অর্থনৈতিক মুক্তির আশা বুকে নিয়ে যে সূর্য উদয়মান হয়ে ছিল,সেই সূর্য কে নিঃশেষিত করার শক্তি পৃথিবীর বুকে কারো নেই।এক কথায় জীবিত বঙ্গবন্ধুর চেয়ে মৃত বঙ্গবন্ধু অনেক শক্তিশালী।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সেই দেখানো অর্থনৈতিক মুক্তির পথে ১৯৯৬ সালে প্রথম আবার পথ চলা শুরু হয় বাংলাদেশের, দেশরত্ন বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার হাত ধরে।আজকের বাংলাদেশ অতীতের যে কোন সময়ের বাংলাদেশের চেয়ে সমৃদ্ধশালী। অনুন্নত বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদার অপেক্ষায়।

আজকের বাংলাদেশের, কুমিল্লা জেলার চান্দিনা উপজেলার মাইজখার ইউনিয়নের কামারখোলা গ্রামের মানুষের জীবন যাত্রার মান উন্নয়ন চোখে পরার মত,যে গ্রামের আলো বাতাসে আমার জন্ম, সে গ্রামের প্রতিটি পরিবর্তন আমার বিবেক কে জাগ্রত করে,মন কে এনে দেয় এক অন্যরকম প্রশান্তি। আমার জন্ম ১৯৮৯ সালের পর থেকে, খুব নিকট থেকে দেখা কামারখোলা গ্রামের শতকরা ৯৯ ভাগ মানুষ সকালের নাস্তা হিসেবে আহার করতেন পান্তা ভাত।আজকের কামারখোলা সেই পান্তা ভাত দিয়ে সকালের নাস্তা করার ব্যক্তির সংখ্যা শতকার ১ ভাগ।

ঠিক প্রায় একই চিত্র বাংলাদেশের প্রতিটি গ্রামের জীবন মানের উন্নয়নের।জাতীয় শোকময় মাস আগস্টের আজ শেষ দিন, তাই শেষ কথায় বলতে চাই আগস্টের শোক কে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জনের শক্তিতে পরিণত করতে হবে। আজকের বাংলাদেশ শেখ হাসিনার নেতৃত্বের বাংলাদেশ প্রমাণ করেছে জীবিত বঙ্গবন্ধুর চেয়ে মৃত বঙ্গবন্ধু আরও অনেক শক্তিশালী। তাই তো তার আর্দশকে বুকে ধারণ করে দুর্বার গতিতে উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

লেখক / মোঃ খোরশেদ আলম
পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অফিস
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়,রংপুর

সাবেক অর্থনীতি বিভাগের ছাত্র
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়,সাভার, ঢাকা।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..