1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:৫০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ভৈরবে উপজেলা যুবদলের আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন সুজন কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ রাজারহাটে বর্ণাঢ্য আয়োজনে হানাদার মুক্ত দিবস পালিত রাজারহাটে সিংহীমারী উচ্চ বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ নতুন জঙ্গি সংগঠন পুলিশ সদস্যদের হত্যার মিশনে মাঠে নেমেছে: র‌্যাব বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি, কমতে পারে রাত ও দিনের তাপমাত্রা রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে ভূমিকম্প অনুভূত অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হতে দেশবাসীর প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবন ফিরোজার সামনে চেকপোস্ট বনানীতে জঙ্গি সন্দেহে একটি আবাসিক হোটেল অভিযান রাজধানীর বাজারে চালের দাম বাড়লেও কমেছে সবজির দাম

করোনা কালে স্বাক্ষরতা দিবস ।

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২৯০ বার

 

আবুল হোসেন লিটন ,(জুড়ী)বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯-এর ভয়াবহতার মধ্যে এবার পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস। তাই এবারের স্লোগান হচ্ছে- ‘কোভিড-১৯ সংকট : সাক্ষরতা শিক্ষায় পরিবর্তনশীল শিখন শেখানো কৌশল এবং শিক্ষাবিদদের ভূমিকা’। বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলায় সাক্ষরতার ভূমিকা ব্যাপক, এটি আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত মানবীয় অধিকার। ব্যক্তিগত ক্ষমতায়ন এবং সামাজিক ও মানবীয় উন্নয়নের হাতিয়ার হিসেবে গ্রহণযোগ্য।

এমন কী শিক্ষার সুযোগের বিষয়টি পুরোপুরি নির্ভর করে সাক্ষরতার ওপর। সাক্ষরতা হচ্ছে মৌলিক শিক্ষার ভিত্তি। ১৯৬৭ সালে ইউনেস্কো প্রথম সাক্ষরতার সংজ্ঞা দিলেও প্রতি দশকেই এ সংজ্ঞা পাল্টাতে হয়েছে। এটিই স্বাভাবিক। ১৯৯৩ সালে ইউনেস্কো এ সংজ্ঞাটি নির্ধারণ করে- যে ব্যক্তি নিজ ভাষায় সহজ ও ছোট বাক্য পড়তে পারবে, সহজ ও ছোট বাক্য লিখতে পারবে এবং দৈনন্দিন জীবনে সাধারণ হিসাব-নিকাশ করতে পারবে। কিন্তু এ সংজ্ঞাটিও এখন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে।

তার প্রমাণ আমরা কোভিড পরিস্থিতিতে পেয়ে গেছি। একজন ব্যক্তি ভালোভাবে বাংলা পড়তে পারলেন, সাধারণ যোগ-বিয়োগ পারলেন; কিন্তু এ কোভিডকালীন উপরোল্লিখিত ডিভাইসগুলোর সঙ্গে পরিচিত নন, ব্যবহার করতে জানেন না; তাকে আমরা এ পরিস্থিতিতে সাক্ষরজ্ঞানসম্পন্ন বলব কিনা, তা ভেবে দেখার সময় এসেছে।

একজন মানুষকে সাক্ষর বলা মানে তাকে একটি সার্টিফিকেট প্রদান করা যে, বর্তমান যুগের সঙ্গে তিনি তাল মেলাতে পারছেন। কিন্তু এ পরিস্থিতিতে তিনি পারছেন না, কাজেই সাক্ষরতার সংজ্ঞা পাল্টে যাবে। আমাদের জীবন পাল্টে গেছে। শিক্ষাদানের পদ্ধতি, শিক্ষাগ্রহণের পদ্ধতিও অনেকটাই পাল্টে গেছে। আরও একটি বিষয় এখানে চলে আসে, সেটি হচ্ছে- বৈশ্বিক এ প্রেক্ষাপটে শুধু নিজের দেশের ভাষায় যদি একজন লোক সাক্ষরজ্ঞানসম্পন্ন হন, তাতে কিন্তু গ্লোবাল ভিলেজের নাগরিক হিসেবে প্রকৃত অর্থে তিনি সাক্ষরজ্ঞানসম্পন্ন নন।
জুড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল ইমরান রুহুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা সভাকক্ষে আলোচনা করেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু রঞ্জন দাশ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোস্তাফিজুর রহমান, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা গোলাম সাদেক,প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মন্তোষ কুমার দেবনাথ, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মামুনুর রশিদ সাজু, জুড়ী সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শীতাংশু দাস,হরিরামপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিহির বরণ রুদ্রপাল। নয়াবাজার আহমদিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাঃ লিয়াকত আলী খান, উপজেলা পরিকল্পনা কর্মকর্তা ওমর ফারুক ,সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা রাজন কুমার সাহা,হযরত শাহখাকী (রঃ) আলিম মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাঃ ইয়াকুব আলী প্রমুখ ।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..