1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:৪৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ভৈরবে উপজেলা যুবদলের আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন সুজন কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ রাজারহাটে বর্ণাঢ্য আয়োজনে হানাদার মুক্ত দিবস পালিত রাজারহাটে সিংহীমারী উচ্চ বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ নতুন জঙ্গি সংগঠন পুলিশ সদস্যদের হত্যার মিশনে মাঠে নেমেছে: র‌্যাব বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি, কমতে পারে রাত ও দিনের তাপমাত্রা রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে ভূমিকম্প অনুভূত অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হতে দেশবাসীর প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবন ফিরোজার সামনে চেকপোস্ট বনানীতে জঙ্গি সন্দেহে একটি আবাসিক হোটেল অভিযান রাজধানীর বাজারে চালের দাম বাড়লেও কমেছে সবজির দাম

ঝিনাইদহে নিজ বাসা থেকে তৃতীয় লিঙ্গের একটি লাশ উদ্ধার; পরিবারের দাবী হত্যা

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৮৩ বার

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ থেকে : ঝিনাইদহ সদর উপজেলার উদয়পুর এলাকা থেকে কারিশমা (৪০) নামে তৃতীয় লিঙ্গ (হিজড়া) এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে সদর থানা পুলিশ। মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মৃত দেহটি তার নিজ বাসা থেকে উদ্ধার করা হয়।

পরিবারের সূত্রে জানা গেছে, কারিশমা পুরুষ লিঙ্গ হিসাবে সদর উপজেলার গোয়ালপাড়া কাশিমপুর গ্রামের মৃত সুলতানুল আলমের ঘরে জন্ম গ্রহন করেন। ১৫/১৬ বছর আগে সে ভারতে যেয়ে হরমোন পরিবর্তন করে হিজড়া হয়েছিল। এর আগে তার নাম ছিলো লিয়াকত আলী। লিঙ্গ পরিবর্তনের পর বাবার বাড়ি ছেড়ে সে শহরে ভাড়া বাসায় বসবাস করত।গত ৭/৮ বছর হলো সে উপজেলার উদয়পুর মন্ডল পাড়ায় ৪ শতক জমির উপর বাড়ি করে সেখানে একাই বসবাস করে আসছিল।নিজের পিত্রালয় ছেড়ে অন্যত্র ভাল না লাগায় সে নিজের জন্মস্থানে একটি বাড়ি করার সিদ্ধান্ত নেন। সেখানে বাড়ি করতে টাকায় পেরে না উঠার কারনে সে এই বাড়িটি বিক্রি করার জন্য সদর উপজেলার গোবিন্দ পুর গ্রামের মৃত ইউনুছ শিকদারে’র মেয়ে জেসমিন সুলতানা কাজলের কাছে সাড়ে পাঁচ লক্ষ টাকা দাম ঠিক হলে ৫০ হাজার টাকা বায়না নেয় কারিশমা। স্থানীয়রা জানায়, উদয়পুর গ্রামে ওই বাড়িতে কারিশমা একাই থাকতো। সম্প্রতি অন্যত্র বাড়ি তৈরী করায় শহরের টার্মিনাল এলাকার এক ব্যক্তির কাছে তিনি বাড়িটি বিক্রি করার জন্য বায়না নিয়েছেন। এ বিষয়ে ক্রেতা জেসমিন সুলতানা কাজলের ভাই রাশিদুল বলেন, গত ৪/৫ দিন হলো একটি ষ্ট্যাম্পে লেখা পড়া করে এই ৫০ হাজার টাকা বায়না করা হয়েছে।

তিনি বলেন, শুক্রবার ১১ই সেপ্টেম্বর সে বাড়িটি আমাদের কাছে হস্তান্তর করবে বলে কথা ছিলো। আজ সকালে বাড়িটি পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করার জন্য কারিশমা’র চাবি দিয়ে যাওয়ার কথা। কিন্তু সকাল থেকে তার ফোন করে না পেয়ে সরাসরি বাড়িতে এসে এই অবস্থা দেখে পুলিশ এবং প্রতিবেশীদের খবর দিয়েছি। বাড়ি বিক্রির বিষয়ে জানতে চাইলে ক্রেতা জেসমিন সুলতানা কাজল বলেন, অনেক দিন ধরে তার বাড়িতে আসা যাওয়ার সুত্র ধরে কারিশমার সাথে পরিচয়।গত কয়েকদিন হলো হঠাৎ একদিন কারিশমা উদয়পুরের এই বাড়িটি বিক্রির কথা তার কাছে বলেন।

তিনি বলেন, বাড়িটি কেনার জন্য গত রবিবার (৬ সেপ্টেম্বর) ৫০ হাজার টাকা বায়না করেছি। বাদ বাকি টাকা আস্তে আস্তে দিয়ে শোধ হওয়ার পর রেজিস্ট্রি করে নেওয়ার কথা ছিল।এছাড়াও কারিশমার ব্যবহারিত দুইটি খাট এবং একটি ড্রেসিং টেবিল আমার কাছে ২০ হাজার টাকায় বিক্রি করেছে। গতকাল সোমবার আমি এই ২০ হাজার টাকা দিয়েছি। যে ফার্নিচার গুলো এখনও এই ঘরে বিদ্যমান রয়েছে। কারিশমার এই মৃত্যুকে রহস্য জনক হত্যা বলে মনে করে ভাই নুরুন্নবী বলেন, কারিশমাকে ঘরের মধ্যে শাঁস রোধ করে হত্যা করে ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। বিছানায় বসা অবস্থায় ফ্যানের সাথে ঝুলছে এটা আত্মহত্যা হতে পারে না।

তিনি বলেন, তাকে হত্যার পর ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। টাকা ও গহনার কারণে কে বা কাহারা তাকে হত্যা করেছে বলে তিনি দাবী করেন। ঘটনার বি ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন, লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত ছাড়া এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা তা বলা যাচ্ছে না।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..