1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৫০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বিএসএনপিএস কমিটি গঠন:সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক সাঃ সম্পাদক শামছুল আলম,সহ সাঃ সম্পাদক ছাবির উদ্দিন রাজু গাজীপুর ভবানীপুর এলাকার শামীম টেক্সটাইল মিলে তুলার গুদামে আগুন ‘জলবায়ু পরিবর্তনে ৭১ লাখ বাংলাদেশি বাস্তুচ্যুত’- ডব্লিউএইচও ভৈরবে আলোচিত তানজিনা হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী বিএমএসএফ প্রতিষ্ঠাতার কণ্যা জেরিন এসএসসিতে গোল্ডেন জিপিএ লাভ বিএমএসএফ নিজস্ব গঠনতন্ত্রে পরিচালিত ট্রাস্টিনামা দলিলের অন্তর্ভুক্ত নয় -সাধারণ সভায় নেতৃবৃন্দ সামাজিক সংগঠন জাগ্রত সিক্সটিনের উপহার পেল পঙ্গু রহিম মিয়া অভিযাত্রিক সাহিত্য ও সংস্কৃতি সংসদ এর  ২২৬১ তম সাপ্তাহিক সাহিত্য আসর অনুষ্ঠিত রংপুরে কৃষকের মুখে হাসি ফুলকপির  ফলন ভালো  হওয়ায় যশোর সীমান্তে এক কিশোরের সাইকেলে পাওয়া গেল ১৫ পিচ স্বর্ণের বার

প্রফেসর ড. মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও : যিনি তাল মিলান বর্তমানের সাথে, চিন্তা করেন ভবিষ্যতের’

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৩১৩ বার

সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে চলা সফলতার অন্যতম নিয়ামক। তবে যারা সময়ের আগে চিন্তা করেন, তাঁরা হয়ে ওঠেন অনন্যসাধারন, দূরদর্শী ও সফলতার উদাহরণ। তেমনি একজন মানুষ আমাদের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর এর মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও স্যার। নিজের দূরদর্শী ও উদ্ভাবনী চিন্তা দিয়ে তিনি এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন আমাদের প্রাণপ্রিয় এই বিশ্ববিদ্যালয়কে। একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ তার শিক্ষার্থীরা, আর সেই প্রাণকে সজীব করার দায়িত্ব বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের, আনুষঙ্গিক কর্মকর্তা, কর্মচারীদের। কিন্ত এর মূলে পচন ধরেছিলো। বিগত উপাচার্যগণের অনিয়ম, দুর্নীতি আর স্বজনপ্রীতি এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল সুনাম আর ভাবমূর্তিকে করেছিলো প্রশ্নবিদ্ধ। বর্তমান মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও স্যার সবার প্রথমে এই মূল ঠিক করার কাজেই ব্রত হোন, দূর করেন নিয়োগ সংক্রান্ত সকল অনিয়ম আর দুর্নীতি। সৎ ও যোগ্য প্রার্থীদের নিয়োগ নিশ্চিত করেন তিনি, যার সুফল বিশ্ববিদ্যালয় পেতে শুরু করেছে। বিশ্ববিদ্যালয় হয়ে উঠেছে আরো গতিশীল ও প্রাণবন্ত।
শিক্ষকদের জন্য আজ থেকে দুই বছরেরও বেশি সময় আগে তিনি শুরু করেন ৬ মাসব্যাপী বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কোর্স। পর্যায়ক্রমে ৪ মাসব্যাপী বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কোর্স ও ২ মাসব্যাপী ইন্ডাকশন ট্রেইনিং কোর্স শুরু করা হয় কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য। কিন্ত ইউজিসি সম্প্রতি ঘোষণা দিলো বিশ্ববিদ্যালয়ের সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকদের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ শুরু করা হবে। অথচ স্যার এই প্রশিক্ষণের প্রয়োজনীয়তা বুঝেছিলেন আরো দুইবছর আগে, যা তাঁর দূরদর্শীতার আরেক অনন্য উদাহরণ। নতুন নতুন করেও আজ প্রায় বার বছর হতে চললো আমাদের এই বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর। তবু যতোটুকু উন্নত হবার কথা, তা হয়নি পূর্বতন কর্তাব্যক্তিদের অসাধুতা ও অযোগ্যতার দরুন। এমন অবস্থায় এসে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের হাল ধরেন আমাদের বর্তমান উপাচার্য প্রফেসর ড. মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও স্যার। শুরু করেন গুটি গুটি পায়ে বিভিন্ন উন্নয়নের সময়োপোযোগী পদক্ষেপ। স্বচ্ছ ও দুর্নীতিহীন শিক্ষক নিয়োগ, ক্লাস রুমের আধুনিকায়ন, ল্যাব প্রতিষ্ঠা, ক্যাফেটেরিয়া পুনরায় চালু করা ইত্যাদি। সেশন জট আমাদের শিক্ষার্থীদের সব থেকে বড় সমস্যা। মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও স্যার এর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বেশ কিছু বিভাগ থেকে সেশন জট সম্পূর্ণরূপে দূর করা হয়েছে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আন্তরিক প্রচেষ্টায় ও উপাচার্য মহোদয়ের সুচিন্তিত পরামর্শ ও নির্দেশনায় অন্যসব বিভাগ থেকেও সেশন জট অচিরেই দূর করা হবে বলে আশা করছি।
বাংলাদেশের অন্যতম রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও বুদ্ধিজীবি এই অনাড়ম্বর জীবন যাপন করা ব্যক্তিটি আমাদের এই বিশ্ববিদ্যালয়কে আরো সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবেন তাঁর বলিষ্ঠ নেতৃত্ব, প্রজ্ঞা আর দূরদর্শীতা দিয়ে। মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও স্যার আমাদের প্রাণপ্রিয় বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর কে গড়ে তুলবেন বাংলাদেশের অন্যতম সেরা বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে। এই আশায় বীজ বুনছি আমরা বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর এর সম্পৃক্ত সবাই।

মোঃ সানজিদ ইসলাম খান
প্রভাষক, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগ,
সহকারী পরিচালক, ক্যাফেটেরিয়া, ও
সদস্য,
নবপ্রজন্ম শিক্ষক পরিষদ,
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..