1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:২৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ভৈরবে উপজেলা যুবদলের আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন সুজন কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ রাজারহাটে বর্ণাঢ্য আয়োজনে হানাদার মুক্ত দিবস পালিত রাজারহাটে সিংহীমারী উচ্চ বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ নতুন জঙ্গি সংগঠন পুলিশ সদস্যদের হত্যার মিশনে মাঠে নেমেছে: র‌্যাব বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি, কমতে পারে রাত ও দিনের তাপমাত্রা রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে ভূমিকম্প অনুভূত অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হতে দেশবাসীর প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবন ফিরোজার সামনে চেকপোস্ট বনানীতে জঙ্গি সন্দেহে একটি আবাসিক হোটেল অভিযান রাজধানীর বাজারে চালের দাম বাড়লেও কমেছে সবজির দাম

বেকার তরুণ-তরুণীদের আত্নকর্মী করছে অনলাইন ব্যবসা

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১২৯ বার

আরমান হোসেন, আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) : অনলাইন সেবার মান বাড়ার সাথে সাথে দেশে বেড়েছে অনলাইন ব্যবহারকারীর সংখ্যা।বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্হা (বিটিআরসি) পরিসংখ্যান মতে দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৯কোটি ৫ লাখ।এদের মধ্যে প্রায় ব্যবহারকারীর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক,ইমু,ওয়াটসঅ্যাপ,লাইকি,টিকটক ইত্যাদি ব্যবহার করেন।অনলাইনের প্রতি আশক্ত শিক্ষিত,অর্ধশিক্ষিত ও বেকার যুবকরা ঝুঁকছেন অনলাইন ব্যবসায়।

ই-কমার্স বা অনলাইন ব্যবসা বিগত কয়েক বছরের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।বর্তমানে দেশের শিক্ষিত বেকারদের অনেককে দেখা যায় অনলাইনে উদ্যােক্তা হয়ে উঠতে।ফেসবুক,ইউটিউব,ওয়েবসাইট ও অ্যাপস তৈরি করে অনলাইনে এসব পণ্যের বিবরণ ও অর্থ বিক্রেতারা তুলে ধরে।অনলাইন ব্যাংকিং বা সরাসরি পেমেন্ট করে ক্রেতারা সহজে পণ্য কিনতে পারে।এক্ষেত্রে পণ্য ক্রেতার নির্ধারিত ঠিকানায় পৌছে দেওয়া হয়।ভোগ্য পণ্য হতে শুরু করে নিত্য প্রয়োজনীয় প্রায় জিনিস অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে।অর্ডার করার সাথে সাথে হাজির প্রয়োজনীয় পণ্য।

বর্তমানে দেশে এই ধরনের ব্যবসায় জড়িত হচ্ছে হাজার হাজর শিক্ষিত বেকার তরুণ-তরুণি। ইভ্যালি, দারাজ, বিক্রয় ডটকম ইত্যাদি নামকরা অনলাইন প্রতিষ্ঠানের সফলতা এসেছে।তাদের অনুকরণে সৃষ্টি হচ্ছে দেশের হাজার হাজার অনলাইন উদ্যােক্তা।বেকারদের করছে আত্নকর্মী।

কুটুম এক্সপ্রেসের স্বত্বাধিকারী আনন্দ কুটুম জানান, কখনো ব্যবসা করবো ভাবিনি,চাকরির বাজারে ঘুরতে ঘুরতে মনে হলো নিজেই একটি কর্মসংস্হান সৃষ্টি করি।একদিন হুট করে টি-শার্ট পাইকারি কিনে অনলাইনে বিক্রি করতে শুরু করলাম।শুরু হলো আমাদের কুটুম এক্সপ্রেসের যাত্রা।ধীরে ধীরে ব্যবসায় সফলতা আশা শুরু করল।আমার ব্যবসা বর্তমানে ভালোই চলছে।

অনলাইনে ব্যবসা করে এমন অনেকে ব্যবসায়ীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়,গত কয়েক বছর থেকে অনলাইনে ব্যবসা করে সফলতা পেয়েছে অনেকে।করোনাকালে এটি আরও বেড়েছে।এতদিন যারা অনলাইনে কেনাকাটায় আগ্রহী ছিলনা তারাও এখন ঝুঁকছেন অনলাইন ব্যবসায়।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..