1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
রামপাল তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৩০ কেজি তামার তারসহ আটক ২ শাকিব খানকে নিয়ে যা বললেন অপু বিশ্বাস চুনারুঘাট হাসপাতালের পুরাতন মালামাল নিলামে অনিয়মের অভিযোগ, অসদাচরণ করলেন সিভিল সার্জন দুর্গাপুরের রাস্তার এক পাগলির আশ্রয় মিলল সরকারি আশ্রয় কেন্দ্রে বরগুনায় শুরু হয়েছে মাস ব্যাপি শিশু আনন্দ মেলা চৌদ্দগ্রামে বাসের ধাক্কায় কলেজ ছাত্রীসহ নিহত ২ নালিতাবাড়ীর বিভিন্ন পূজা মন্ডপে আর্থিক অনুদান প্রদান নাঙ্গলকোটে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারের অভিযোগ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় দুর্বৃত্তদের হামলায় যুবকের পা বিচ্ছিন্ন ‘একটি স্বপ্ন-সোপান’এর আয়োজনে নালিতাবাড়ীতে রচনা প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত

আনোয়ারায় অগ্নিকান্ডে ৬টি দোকান ভস্মীভূত

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১৩৬ বার

 

আরমান হোসেন,চট্টগ্রাম (আনোয়ারা) প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের ওয়াহেদ আলী চৌধুরী বাজারে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে সৃষ্ট অগ্নিকান্ডে ৬টি দোকান ভস্মীভূত হয়েছে।

বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) ভোর চারটার দিকে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এতে ২টি কসমেটিক্স ও কম্পিউটারের দোকান, ১টি চায়ের দোকান, ১টি মুদির দোকান ও ১টি মুরগী এবং ইলেকট্রনিক্সের দোকান ও ১টি কুলিং কর্ণারের দোকান আগুনে ভস্মীভূত হয়।

প্রত্যক্ষর্দশীরা জানান, ভোর চারটার দিকে একটি কসমেটিক্সের দোকানের মিটার থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। যথাসময়ে বিদ্যুৎ বন্ধ না হওয়ায় এলাকাবাসীরা অনেক চেষ্টা করেও আগুন নেভাতে সক্ষম হয়নি। পরে ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। ততক্ষণে মোঃ হেলাল উদ্দীনের কসমেটিক্সের দোকান,মোঃ হারুনের চায়ের দোকান, মোঃ আয়ুবের মুদির দোকান, মোঃ ওসমানের মুরগী ও ইলেকট্রনিক্সের দোকান,মোঃ নাঈম উদ্দীনের কসমেটিক্স ও কম্পিউটারের দোকান এবং মোঃ দিদারের কুলিং কর্ণারের দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

স্থানীয় ফাহিম নামক এক যুবক বলেন,ওয়াহেদ আলী চৌধুরী বাজার জামে মসজিদের মাইক থেকে বাজারে আগুন লাগার বিষয়টি মাইকিং করলে আমরা দ্রুত ছুটে আসি আগুন নেভাতে।আগুন প্রথমে বৈদ্যুতিক মিটার থেকে ধরেছিল। তারপর সেখান হতে বৈদ্যুতিক তারে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। তখনও বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ না হওয়ায় আমরা আগুন নেভাতে সামনে অগ্রসর হতে পারিনি। পরে বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ হলে আমরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করি। কিন্তু আগুনে ছারখার হওয়া দোকানগুলোর মাঝে গ্যাস সিলিন্ডার থাকায় আমরা পুরোপুরি সক্ষম হয়নি।পরে ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

আনোয়ারা ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ দুলাল কুমার মিত্র জানান, অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই। আগুনে ৬টি দোকান ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এতে আনুমানিক ৩ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানান তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..