1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০১:৪২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরলেন সিটি মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের চৌদ্দগ্রাম পৌর অংশে ময়লার বাগাড়, শিশুদের স্থাস্থ্য ঝুঁকির আশংকা সর্বসাধারণের জন্য বিশুদ্ধ খাবার পানির সুব্যবস্থা এর উদ্বোধন করলো পুনাক বাগেরহাটের রামপালে  ৬১টি জিআই পাইপ ও ১টি লোহার বিম ও ৮০টি জিআই পাইপ ও ১টি ওয়াটার বাল্বসহ মোট ৭ লক্ষাধিক টাকার মালামাল জব্দ করেছে ৩ আনসার ব্যাটালিয়ন, রামপাল ক্যাম্প। বাঙালির মুক্তির জন্য বহু বিনিদ্র রজনী অতিবাহিত করেছেন বঙ্গবন্ধু : ড.কলিমউল্লাহ বাড়তি বৃষ্টিপাতে হতে পারে বন্যা, শঙ্কা আছে ঘূর্ণিঝড়ের ‘মুজিববর্ষে প্রায় ২ লাখ পরিবার সরকারি ঘর পেয়েছে’ – প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে গণহত্যার স্বীকৃতির দাবিতে কাল রংপুর সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ ৭১ এর মানববন্ধন রংপুরে মাসব্যাপী শিল্প ও বাণিজ্য মেলা শুরু নেত্রকোণা জেলার শ্রেষ্ঠ ইউএনও অফিসার রাজীব-উল-আহসান

দেওয়ানগঞ্জে ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়মের তদন্ত

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৮ মার্চ, ২০২১
  • ৪২৬১ বার

 

দেওয়ানগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সোমবার ৮মার্চ জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ডাংধরা ইউনিয়নের ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোঃ মমিনুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে আনিত অনিয়মের অভিযোগের তদন্ত করা হয় ।
গত ৩ মার্চ উপজেলার ডাংধরা ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ভূমিহীনদের ঘর বরাদ্দ বাবদ অর্থ গ্রহনের করেন বলে লিখিত অভিযোগে জানা যায়, এতে প্রায় ৩ শত পরিবার হতে টাকা গ্রহন করেন বলে একই ইউনিয়নের সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য নাছিমা বেগম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। এছাড়াও ভূমির খাজনা, দাখিলা, নাম জারী বাবদ পরিমানের চেয়েও অনেকগুণ বেশী টাকা নেয় বলেও অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী জনতা। এর সুত্র ধরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশনায় ৮ মার্চ ডাংধরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে তদন্ত কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ আফতাব উদ্দিন ও তার সফরসঙ্গী পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক কর্মকর্তা । ডাংধরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহ মোঃ মাসুদ এর সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও ভুক্তভোগী জনসাধারণ। তদন্ত কর্মকর্তা গণ পর্যায়ক্রমে ভুক্তভোগীদের সাক্ষাৎকার গ্রহন করেন ও প্রমাণাদী সংগ্রহ করেন। এ সময় উপস্থিত জনতার মধ্য হতে অলিখিত মৌখিক অগণিত দুর্নীতির অভিযোগ মেলে এই ভূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। ডাংধরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহ মোঃ মাসুদ বলেন- প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঘর বাবদ টাকা নিয়েছে কিনা আমি জানিনা, তবে ভূমি সংক্রান্ত কাজে নানা অনিয়মের অভিযোগ শুনেছি ইতিপুর্বে। দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট একেএম আব্দুল্লাহ বিন রশিদ এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন তদন্ত চলমান আছে, তদন্ত শেষে প্রতিবেদণ অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
এবিষয়ে তদন্ত কর্মকর্তার নিকট জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকের ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হননি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..