1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
রামপাল তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৩০ কেজি তামার তারসহ আটক ২ শাকিব খানকে নিয়ে যা বললেন অপু বিশ্বাস চুনারুঘাট হাসপাতালের পুরাতন মালামাল নিলামে অনিয়মের অভিযোগ, অসদাচরণ করলেন সিভিল সার্জন দুর্গাপুরের রাস্তার এক পাগলির আশ্রয় মিলল সরকারি আশ্রয় কেন্দ্রে বরগুনায় শুরু হয়েছে মাস ব্যাপি শিশু আনন্দ মেলা চৌদ্দগ্রামে বাসের ধাক্কায় কলেজ ছাত্রীসহ নিহত ২ নালিতাবাড়ীর বিভিন্ন পূজা মন্ডপে আর্থিক অনুদান প্রদান নাঙ্গলকোটে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারের অভিযোগ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় দুর্বৃত্তদের হামলায় যুবকের পা বিচ্ছিন্ন ‘একটি স্বপ্ন-সোপান’এর আয়োজনে নালিতাবাড়ীতে রচনা প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত

রংপুরের গংগাচড়ায় নকল ব্যান্ডল দিয়ে তৈরী হচ্ছে বিড়ি উৎপাদন।

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ১১০ বার

রিয়াজুল হক সাগর, রংপুর জেলা প্রতিনিধিঃ

রংপুরের গংগাচড়ায় কাষ্টমসের চোখ ফাকি দিয়ে তৈরী হচ্ছে নানান নামের বিড়ি। এতে সরকার হারাচ্ছে কোটি কোটির রাজস্ব। যে সব এলাকায় বিড়ি তৈরী হয় সেখানে দেখা গেছে যে দিনের আলোয় বিড়ি উৎপাদিত হয় না কাষ্টম কমর্কতার ভয়ে অথচ রাতে আধারে কোটি কোটি বিড়ি উৎপাদিত হচ্ছে যেন দেখার কেউ নেই। সেই বিড়ি আবার নানা কৌশলে রাতের বেলায় দেশের বিভিন্ন এলাকা দিয়ে চলে যাচ্ছে রাতের আধারে বা দিনের আলোয় । আর কাষ্টম করমকর্তার অবহেলায় এই বস বিড়ি দেশের প্রতিটি জেলায় পৌছে যায় খুব সহজে। এলাকার সাধারণ মানুষ মনে করেন সরকারকে ফাকি দিয়ে কোটি কোটি টাকার রাজস্ব বিড়ি মালিকদের পেট ফুলিয়ে কলা গাছ হচ্ছে আর সরকার হারাচ্ছে তার রাজস্ব আয়। গংগাচড়ার বড়াইবাড়ি গজঘন্টর হাবু, বুড়ির হাট. মৌলভীর বাজার, আনুরবাজার,ভরসা বাজার চৌদ্দো মাথা খলিফারবাজারসহ অনেক এলাকায় নকল ব্যান্ডোল দিয়ে বিড়ি উৎপাদিত হচ্ছে যাহা কিনা সাধারণ মানুষ জানে । তবে একটি বিষয় পরিস্কার হলো যে কাষ্টম করমকর্তার অবহেলায় এই বস বিড়ি উৎপাদিত হচ্ছে। বিশেষ করে চোখে পড়ে ভোর রাতে ও সকালের দৃশ্য আর বিকালের দৃশ্যটি মটর গাড়িতে করে এই সব বিড়ি চোরাই পথে এবং লোকাল রোডে চলে যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন এলাকায় ও পার্সেল অফিসে। আর কাষ্টমস করমকর্তার নাকের ডগার উপর দিয়ে। এই সমস্ত অবৈধ বিড়ি চলে যাচ্ছে দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় বিড়ি ব্যাবসায়ী রা অতি সাবধানে চলাফেরা করে থাকেন । আরও অভিযোগ উঠে যে কাষ্টমস করমকর্তাকে মেনেজ করে এই সমস্ত বিড়ি তৈরী হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে প্রতিদিন এই এলাকায় কাষ্টমস করমকর্তারা এসে ঘুষ নিয়ে চলে যান আর তাদের বলে যান যে আপনার আমাদের খুশি রাখলে আপনাদের খুশি রাখবো আমরা। আর মামলার ভয় দেখিয়ে তাদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা যাহা কিনা আমাদের কাম্য নয়। যেমন বিড়ি মারিকদের অবহেলা তেমনি কাষ্টমস কমকর্তারদের দুনীর্তির অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। যাকে বলে চোরে চোরে মাসতা তো ভাই।
সাধারণ মানুষ মনে করেন এই সমস্ত এলাকায় কাষ্টম করমকর্তার অভিযান জরুরী। এই সব এলাকায় অনেক বিড়ি কোম্পানি নতুন করে ব্যাঙ এর ছাতার মত গজিয়ে উঠেছে
আর অনেক এলাকা থেকে এই সব বিড়ি কোম্পানিগুলি রাজস্ব ফাকির ভয়ে এই র্নিজন এলাকায় বিড়ি তৈরী হচ্ছে এখানকার মাতব্বরদের মেনেজ করে এই বস এলাকায় নকল ব্যান্ডোল দিয়ে বিড়ি উৎপাদিত হচ্ছে। এখনকার সাধারণ মানুষ মনে করেন এই এলাগুলিতে সব অবৈধ বিড়ি উৎপাদনে সরকারে সু দৃষ্টি থাকবে বলে মনে করেন তারা।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..