1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০২:৩৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরলেন সিটি মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের চৌদ্দগ্রাম পৌর অংশে ময়লার বাগাড়, শিশুদের স্থাস্থ্য ঝুঁকির আশংকা সর্বসাধারণের জন্য বিশুদ্ধ খাবার পানির সুব্যবস্থা এর উদ্বোধন করলো পুনাক বাগেরহাটের রামপালে  ৬১টি জিআই পাইপ ও ১টি লোহার বিম ও ৮০টি জিআই পাইপ ও ১টি ওয়াটার বাল্বসহ মোট ৭ লক্ষাধিক টাকার মালামাল জব্দ করেছে ৩ আনসার ব্যাটালিয়ন, রামপাল ক্যাম্প। বাঙালির মুক্তির জন্য বহু বিনিদ্র রজনী অতিবাহিত করেছেন বঙ্গবন্ধু : ড.কলিমউল্লাহ বাড়তি বৃষ্টিপাতে হতে পারে বন্যা, শঙ্কা আছে ঘূর্ণিঝড়ের ‘মুজিববর্ষে প্রায় ২ লাখ পরিবার সরকারি ঘর পেয়েছে’ – প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে গণহত্যার স্বীকৃতির দাবিতে কাল রংপুর সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ ৭১ এর মানববন্ধন রংপুরে মাসব্যাপী শিল্প ও বাণিজ্য মেলা শুরু নেত্রকোণা জেলার শ্রেষ্ঠ ইউএনও অফিসার রাজীব-উল-আহসান

এবার করোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে শঙ্কা

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১২ মে, ২০২১
  • ১০১ বার

নিজস্ব প্রতিবেদক
ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের এই ভিড় করোনা সংক্রমণ বাড়াতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে
দেশে বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ১৪ মাস চলছে। ইতিমধ্যে ভাইরাসটির প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউ সামাল দিয়েছে বাংলাদেশ। এবার মহামারিটির তৃতীয় ঢেউ আসতে পারে বলে আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ বি এম খুরশিদ আলম।

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে মহাপরিচালক বলেন, ‘ঈদ উৎসবকে কেন্দ্র করে জনসমাগম এবং মানুষের চলাচল যেভাবে বেড়েছে তাতে আমরা অত্যন্ত শঙ্কিত। যারা ঢাকা ছেড়ে গেছেন, পরবর্তী সময়ে তারা যখন ফিরে আসবেন তখন আমাদের করোনার সংক্রমণ বাড়বে কি না তা নিয়ে আমরা চিন্তিত।’

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ অনেকটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এরই মধ্যে আমাদের সক্ষমতা অনেকখানি বেড়েছে। আমাদের করোনা হাসপাতালগুলোর অধিকাংশ বেড এখন খালি। আমাদের দ্বিতীয় ঢেউ যেটা এসেছিল সেটা অনেকখানি নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। কিন্তু আমরা শঙ্কা প্রকাশ করছি, আগামীতে না আমরা আরেকটা ঢেউয়ের সম্মুখীন হই।’

করোনার ভারতীয় ধরনের ভয়াবহতার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে সবার কাছে বিনীত অনুরোধ জানাবো, মানুষের সচেতনতা বাড়াতে আমরা সবাই মিলে যেন চেষ্টা করি। করোনা মহামারি কবে পৃথিবী থেকে যাবে আমরা জানি না। সে ক্ষেত্রে পৃথিবী থেকে এটা নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চলার কোনো সুযোগ নেই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানও যদি আমরা না শুনি তাহলে আমাদের কে রক্ষা করবে। আমাদের নিজেদের সর্বনাশ যদি নিজেরা ডেকে আনি তাহলে এটা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া খুব মুশকিল।’

দেশে গত বছরের ৮ মার্চ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। কয়েক মাস প্রথম সংক্রমণ ও মৃত্যুর ঊর্ধ্বগতি থাকার পর মাঝে কয়েক মাস অনেকটা কমে আসে। তবে গত মার্চ মাস থেকে শুরু হয় করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। ইতিমধ্যে দেশে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ১২ হাজার ছাড়িয়েছে। আর শনাক্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে পৌনে আট লাখ। সম্প্রতি করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট বা ধরন দেশে শনাক্ত হয়েছে। এটা নতুন করে উদ্বেগ সৃষ্টি করছে জনমনে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..