1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০৪:০১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
পাবনা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনের অযৌক্তিক ভাড়া নির্ধারণের প্রতিবাদে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত সাভারে সাংবাদিক সোহেল রানাকে প্রকাশ্যে হত্যার চেষ্টা দুর্নীতিতে আক্রান্ত রুটিরুজিও? জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল উদ্ধোধন মনে পড়ে ড্রিম গার্ল শ্রীদেবীকে? ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের মাধ্যমে নরসিংদী সদর প্রেস ক্লাবের কমিটি গঠন। ফেনী শহরের আবাসিক হোটেল গুলোতে মাদক, জুয়াসহ চলছে রমরমা দেহ ব্যবসা,ধ্বংসের মুখে তরুণ সমাজ বঙ্গবন্ধুর সংবেদনশীলতা ছিল অতুলনীয়: ড.কলিমউল্লাহ সাবেক সিনিয়র সচিব সৌরেন্দ্র নাথ চক্রবর্তী (সৌরেন)আগামী নমিনেশনের জন্য দলের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করে প্রচারনা চালাচ্ছেন বঙ্গবন্ধু বাঙালির প্রতি ভালবাসার অফুরান ঝর্ণাধারার উৎস: ড.কলিমউল্লাহ বঙ্গবন্ধু অধ্যবসায়ী নেতা ছিলেন: ড.কলিমউল্লাহ

দুর্গাপুরে শুস্ক মৌসুমেও সড়কে যেন বর্ষা

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২২
  • ২৩০ বার

 

আল নোমান শান্ত
দুর্গাপুর(নেত্রকোণা) প্রতিনিধি

নেত্রকোণার দুর্গাপুর পৌর শহরের প্রধান সড়ক দিয়ে ভেঁজা বালু পরিবহন করায় শহরের রাস্তার ওপরে কাঁদার স্থুপে পরিনত হয়েছে। পৌর শহরের তেরীবাজার, হাসপাতাল মোড়, প্রেসক্লাব মোড়,এমপির মোড়,কাঁচারী রোড, উৎরাইল বাজার রাস্তায় কাঁদায় সয়লাভ। প্রতিদিন হাজার হাজার ট্রাক ও লরি পৌর শহরের ভিতর দিয়ে ভেঁজা বালু পরিবহনে ও গাড়ীর জ্যাম লেগে থাকায় ব্যবসা-বানিজ্য সহ পথচারীদের চলাফেরায় বড় বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। শহরের রাস্তা গুলোর প্রায় অংশেই খানা-খন্দ ও কাঁদা পানি জমে থাকায় শুস্ক এই মৌসুমেও সড়কে যেন বর্ষার আমেজ বিরাজ করছে। শহরের প্রতিটি রাস্তা ভাসছে কাঁদা পানিতে। এ অবস্থায় বালুব্যবসহীদের কাছে জিম্মি হয়ে পরেছেন পৌরবাসী। গত বছর পৌর শহরের ভেতর দিয়ে বালুবাহী ট্রাক চলাচল বন্ধসহ কয়েক দফা দাবি নিয়ে স্থানীয়দের লাগাতার আন্দোলন করেও সুফল আসেনি। স্থানীয়দের অভিযোগ, বালুবাহী ট্রাকের জন্য বাইপাস সড়কের আশ্বাস দিলেও বাস্তবায়ন হয়নি। বরং উল্টো দুর্ভোগ প্রতিনিয়ত বেড়েই চলছে। এমন অবস্থা থেকে মুক্তি চাই ভুক্তভোগীরা।

পথচারী একব্যাক্তি সাংবাদিককে বলেন, দুর্গাপুরের এতো খারাপ অবস্থা যে রাস্তার এপার থেকে ওপার যাওয়া যাচ্ছে না,জুতা গুলো হাতে নিয়ে রাস্তা পার হলাম এইভাবে আর কতদিন যাবে এর থেকে মুক্তি চাই আমরা।

বাজার ব্যবসাহী বলেন, রাস্তার কাঁদা পানি দোকানে চিটে এসে পরে দোকানের মালামালের ক্ষতি হচ্ছে, ব্যবসায় মন্দভাব দেখাদিয়েছে রাস্তার এমন খারাপ অবস্থায় মানুষ এখন আর দোকানে আসে না। দোকান খুলে বসে থাকা ছাড়া আমাদের কোনো উপায় নাই, আমরা এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণ চাই।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..