1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahamed : Sohel Ahamed
শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ০৪:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
উদ্বাস্তু পুনর্বাসনে বঙ্গবন্ধু অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন: ড.কলিমউল্লাহ বঙ্গবন্ধু স্বপ্নচারী এবং দূরদর্শী ব্যক্তিত্ব ছিলেন: ড.কলিমউল্লাহ বিজিবির রাতভর অভিযানে ভোরে ৯ গরু জব্দ, আরো ৫১টি গরু পাহাড়ে চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও সার্জন,ভুয়া এমবিবিএস ও এমডি পদধারী প্রতারক ডাক্তার আটক র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ে বসবাসকারীদের জন্য ১৯টি আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে ঈদগাঁও বাজারে চাঁদা দাবির অভিযোগ! বিশ্ব বাবা দিবস উপলক্ষে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হারাগাছ সাহিত্য সংসদের সাহিত্য আসর অনুষ্ঠিত। রংপুরের গংচড়ায় বিধবা ভাতা ও একটি টিনের ঘরের জন্য আকুতি জানিয়েছেন রুনা লায়লা গ্লোবাল টিভির সাংবাদিকদের উপর হামলার প্রতিবাদ ও সন্ত্রাসী মুন্নার গ্রেফতারের দাবিতে সাভারে বিভিন্ন কর্মসূচী

বাউফলের সেলিম মেম্বরের দূর্ণীতিঃ পর্ব – ১ আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে শ্যালকের বউ, ভাই, ছেলেরা

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ৩৭ বার

আব্দুল্লাহ আল হাসিব , বরিশাল  প্রতিনিধি:

“আশ্রয়নের অধিকার শেখ হাসিনার উপহার” এ শ্লোগান নিয়ে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত “সবার জন্য বাসস্থান” নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বাস্তবায়িত হচ্ছে আশ্রয়ন প্রকল্পের কাজ। মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার ০১ নং কাছিপাড়া ইউনিয়নের ০১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সেলিম হাওলাদারের বিরুদ্ধে ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ‘যার জমি আছে ঘর নেই, তার নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ’ আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এ ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। তিনি প্রকল্পের উপকার ভোগীদের নামের তালিকায় (খ- শ্রেনী) তার ছোট ভাই, ছোট ছেলে, বড় ছেলে, শ্যালকের বউসহ ভবনওয়ালা স্বচ্ছল নিকটজনদের নামের তালিকা করে ঘর বরাদ্দ করেছেন। ফলে প্রকৃত ভূমিহীন ব্যক্তিরা বঞ্চিত হয়েছেন।

সরেজমিনে ভুক্তভোগীদের সঙ্গে আলাপকালে ও এলাকাবাসীর অভিযোগ এবং উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার (পিআইও) কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার ০১ নং কাছিপাড়া ইউনিয়নে ০১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সেলিম হাওলাদার ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ‘যার জমি আছে ঘর নেই, তার নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ’ আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এ অট্টালিকা দালান ঘরে বসবাস করা তার ছোট ভাই জহিরুল ইসলাম (খোকন), পিতা- মৃত. মোসলেম উদ্দিন হাওলাদার, আইডি নম্বর – ৩৩১৩০৬৭৬২২৮৫৯২ কে আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এ উপকার ভোগীদের নামের তালিকায় (খ- শ্রেনী) ১০৮ ক্রমিক নম্বরে স্থান করে দিয়ে ঘর প্রদান করেছেন। এছাড়া ১১১ ক্রমিক নম্বরে দালান ঘরে বসবাস করা ছোট ছেলে মোঃ সাজিদুর রহমান (সোহাগ), পিতা- মোঃ সেলিম হাওলাদার, আইডি নম্বর – ১৯৯৬৭৮১৩৮৪৭০০০০৫০, ১১৬ ক্রমিক নম্বরে দালান ঘরে বসবাস করা বড় ছেলে মোঃ সাইফুল ইসলাম (সোহেল), পিতা- মোঃ সেলিম হাওলাদার, ১১২ ক্রমিক নম্বরে দালান ঘরে বসবাস করা শ্যালকের বউ মোসাঃ ফরিদা বেগম, স্বামী- মোঃ জসিম উদ্দিন মোল্লা, আইডি নম্বর- ৭৮১৩৮৪৭৮০৩৮৩১ এবং ১২১ ক্রমিক নম্বরে কাছিপাড়া বাজারের পূর্ব পাশে দোতলা ভবনের মালিক লাল মিয়ার (লতিফুর রহমান আকন) ছেলে মোঃ দেলোয়ার হোসেন আকনকে ঘর প্রদান করেছেন। ১১০ ক্রমিক নম্বরের মৃত কালু সিকদারের ছেলে আবদুর রহমান সিকদার (আইডি নম্বর – ৭৮১৩৮৪৭৮০৩৮৩১), ১৪১ ক্রমিক নম্বরের তাজেম আলী আকনের ছেলে রফিকুল ইসলাম আকন, ১১৫ ক্রমিক নম্বরের আবদুস সোবাহান হাওলাদারের ছেলে কবির হাওলাদার (আইডি নম্বর – ২৬৯৫০৪৭৯৮৮২৭১), ১২২ ক্রমিক নম্বরের মকবুল সিকদারের ছেলে বসার সিকদার, ১২৩ ক্রমিক নম্বরের মোঃ আলতাফ গাজীর ছেলে মোঃ ইব্রাহীম গাজীর নামে বাস্তবে কোন ঘর দেওয়া হই নাই।

স্পর্শকাতর বিষয় হচ্ছে, ১১৯ ক্রমিক নম্বরের আবদুস সোবাহান কারিকরের ছেলে নজরুল ইসলাম কারিকর ও ১২০ ক্রমিক নম্বরের মনসুর আলী শিকদারের ছেলে আয়ুব আলী শিকদার আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এ প্রাপ্ত ঘরে গোয়ালঘর হিসাবে ব্যবহার করতেছেন। এবিষয়ে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য সেলিম হাওলাদার বলেন, আমি যেসব নাম দিয়েছি তার মধ্যে আয়ুব শিকদারসহ আরেকজন তো ঘরই পায় নাই, এই বলে ফোন কেটে দেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি মোঃ আল আমিন বলেন, ইউপি সদস্য সেলিম হাওলাদারের আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এ অনিয়মের বিষয়টি আমি জানি, তদন্ত চলিতেছে। পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক কামাল হোসেন ছুটিতে থাকায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সাধারন) বলেন, অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..