1. admin@lalsabujerdesh.com : ডেস্ক :
  2. lalsabujerdeshbd@gmail.com : Sohel Ahmed : Sohel Ahmed
সোমবার, ২৭ মার্চ ২০২৩, ১২:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
নর্থ- সাইপ্রাস বাংলাদেশ কমিউনিটির “মহান স্বাধীনতা দিবস উদ্যাপন ২০২৩ “ বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণটি ছিল বাঙালির মুক্তি ও স্বাধিকার অর্জনের মূলমন্ত্র: ড.কলিমউল্লাহ ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিজয়নগরে অভিযান শিক্ষা কর্মসূচির উদ্দ্যোগে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান । রংপুরের গঙ্গাচড়ায় চিরকুট লিখে কিশোরীর আত্মহত্যা ভৈরব থেকে ৩৮ কেজি মাদকদ্রব্য গাঁজা পাচারকালে ০১ মাদক কারবারীকে আটক টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল শেখ খালিদ মোহাম্মদ ইফতেখার এর বিদায়: নবাগত অধিনায়ক লে.কর্ণেল মোহাম্মদ মহিউদ্দিন আহমদ কে বরণ। দেশ ও প্রবাসের সকলকে পবিত্র মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাংবাদিক মোঃ শহিদুল ইসলাম ফসলি জমি দখল করে মাটি বিক্রি, থানায় অভিযোগ বন্দর নগরীর চকবাজারে ডার্ক রেস্টুরেন্ট গুলো যেন অবৈধ মেলামেশার স্বর্গরাজ্য চট্টগ্রাম মহানগর বিচার বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত ‘মত বিনিময় সভায়, সিএমপি কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায়

প্রবাসীদের স্বর্ণ,অর্থ ও মালামাল আত্মসাৎকারী প্রতারক রিপনকে খুঁজছে পুলিশ

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ১৪ বার
প্রবাসীদের স্বর্ণ,অর্থ ও মালামাল আত্মসাৎকারী প্রতারক রিপনকে খুঁজছে পুলিশ

মোঃ আব্দুল হান্নান,নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধিঃ

দেশের গন্ডি ফেরিয়ে বিভিন্ন সময়ে দুবাই ও মালয়েশিয়া গিয়ে প্রবাসী বাংলাদেশীদের স্বর্ণ,নগদ টাকা,ল্যাপটপ,মোবাইল ও অন্যান্য মালামাল বাড়িতে পৌছে দেয়ার নামকরে এনে নিজে আত্মসাৎকারী রিপন মিয়া এখন পুলিশের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

সস্প্রতি দুবাই প্রবাসী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলার মরমানন্দপুর গ্রামের মোঃ হাসান মিয়ার অনুমান ২৪ লক্ষ টাকা মুল্যের ৩৩২ গ্রাম স্বর্ণ, নগদ ৪০ হাজার টাকা, ২ লক্ষ টাকা মুল্যের একটি আই ফোন আর ৫০ হাজার টাকা মুল্যের একটি ল্যাপটপ আত্মসাতের কারনে মোঃ হাসান মিয়ার ভগ্নিপতি মোঃ সায়েম মিয়া বাদী হয়ে নাসিরনগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করার পর থেকেই গা ডাকা দেয় রিপন মিয়া।

জানা গেছে প্রতারক রিপন মিয়ার গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার ফান্দাউক ইউনিয়নের আতুকোড়া গ্রামে।রিপনের বাবার নাম মৃত রেনু মিয়া।আর রিপনের শ্বশুর বাড়ি ধরমন্ডল ইউনিয়নের ধরমন্ডল গ্রামে।

এক অনুসন্ধানে জানা গেছে এর পূর্বেও রিপন মিয়া মালয়েশিয়া গিয়ে এরূপ বাংলাদেশী অনেকের টাকা, স্বর্ণ,দামী মোবাইল,ল্যাপটপ এনে বাড়িতে পৌছে দেয়ার নাম করে নিজে আত্মসাৎ করে ফেলে। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক রিপনের গ্রামের একাধিক ব্যাক্তিবর্গরা জানায়,প্রতারনা করে মানুষের অর্থ সম্পদ আত্মসাৎ করা রিপনের ছোটবেলার অভ্যাস।তারা আরো জানায়,রিপন ছাড়াও তার পরিবারে বড় ভাই,ভাবী,ভাতিজি অনেকেই মাদক আর নারী ব্যবসার সাথে জড়িত রয়েছে।তাদের অনেকের নামে একাধিক মাদক মাললাও রয়েছে।রিপন শুধু প্রতারকই নয় সে নারী কেলেংকারীর সাথে ও জড়িত রয়েছে।নাসিরনগরে এক নারীর সাথে অনৈতিক কাজ করতে গিয়ে ও নারীর থানায় লিখিত অভিযোগের পর তখন ও পালিয়ে যায় রিপন মিয়া।

 

লাল সবুজের দশ

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..